রাজাপুরে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ

ঝালকাঠি প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:১৬

ঝালকাঠির রাজাপুরে রিমা আক্তার (২১) নামে এক প্রবাসীর স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের স্বজনদের অভিযোগ তাকে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে নিহতের দেবর বরকত পলাতক রয়েছেন।

শুক্রবার দুপুরে উপজেলার সাতুরিয়া গ্রামে শ্বশুরবাড়ি থেকে রিমার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত রিমা সাতুরিয়া গ্রামের মালয়শিয়া প্রবাসী মো. হাবিবুর রহমানের স্ত্রী ও উপজেলার পূর্বফুলহার গ্রামের মোদাচ্ছের আলী আকনের মেয়ে। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, রিমা আক্তার শ্বশুর শাশুড়ির সঙ্গে এক ঘরে বসবাস করতেন। রাতে সবাই একসঙ্গে রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। শুক্রবার সকালে ঘুম থেকে উঠে রিমাকে ঘরের আড়ার সঙ্গে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় দেখতে পায় পরিবারের লোকজন। তাদের চিৎকার শুনে স্থানীয়রা এসে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ যাওয়ার আগেই তারা রিমার লাশ আড়া থেকে নামিয়ে নিচে রাখেন। 

তবে, রিমার বড় ভাই ছোলায়মান ইসলাম পারভেজ অভিযোগ করেন, রিমা আত্মহত্যা করেননি, তাকে হত্যা করা হয়েছে। কারণ খাটের পাশে একফুট দূরত্বে ঘরের বেড়ার সঙ্গে কাপড় রাখার স্থান। সেখানে গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করার মতো কোনো জায়গা নেই। বাচার জন্য তার চারপাশে হাত দিয়ে ধরার অনেক কিছু ছিল। আর লাশ উদ্ধারের পরপরই রিমার দেবর বরকত হোসেন গা ঢাকা দিয়েছে। 

এদিকে, রিমার শ্বশুর বাড়ির লোকজন একটি চিঠি স্থানীয়দের কাছে বিতরণ করেন। তাতে লেখা আছে লাশের ময়না তদন্ত যেন না করা হয়। এসবগুলোই ষড়যন্ত্র বলে দাবি করেন নিহতের ভাই। তিনি ঘটনার প্রকৃত কারণ উদঘাটনের জন্য পুলিশের কাছে অনুরোধ করেন।

এ ব্যাপারে রাজাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. জাহিদ হোসেন বলেন, রিমা আক্তারের মৃত্যুর সঠিক কারণ জানতে লাশ ময়না তদন্তের জন্য ঝালকাঠি সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে, ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ঢাকাটাইমস/০৭ডিসেম্বর/প্রতিনিধি/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত