মওদুদ কীভাবে ভোট চাইবেন: কাদের

নোয়াখালী প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৬:৪৩

নিজের প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি প্রার্থী মওদুদ আহমদের কোনো জনপ্রিয়তা নেই বলে দাবি করেছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। গত ২২ বছরে মওদুদ নিজ এলাকায় ২২টি কাজও করেননি দাবি করে তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, মওদুদ জনগণের কাছে ভোট চাইবেন কীভাবে!

শনিবার দুপুরে নোয়াখালীর কবিরহাটে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। এদিন নিজ নির্বাচনী এলাকা নোয়াখালী-৫ (কোম্পানীগঞ্জ-কবিরহাট) আসনে গণসংযোগ ও মতবিনিময় করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

মওদুদের সমালোচনা করে কাদের বলেন, ‘তারা নিজেরাই তাদের গণসংযোগে বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করেছেন। বিএনপি নিজেরা যেকোনো ঘটনা ঘটিয়ে এর দায় আওয়ামী লীগের ওপর চাপিয়ে দিতে পারে। তাই নির্বাচন কমিশন ও প্রশাসনকে এ ব্যাপারে সজাগ থাকতে হবে।’
ভোটের পরিবেশ সম্পর্কে কাদের বলেন, ‘নির্বাচনের পরিবেশ ঠিকই আছে। মওদুদ আহমদ গত কয়েক দিন ধরে নেতাকর্মী নিয়ে এ এলাকায় গণসংযোগ করে নির্বাচনে আচরণবিধি ভঙ্গ করেছেন।’

আওয়ামী লীগ সরকার গত ১০ বছরে পুরো দেশে যে উন্নয়ন করেছে সাধারণ মানুষ সে উন্নয়নের কারণেই পুনরায় আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করবে বলে মনে করেন কাদের। নিজ নির্বাচনী এলাকার নানা উন্নয়নের অবস্থা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘কবিরহাট-কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় যে উন্নয়ন হয়েছে তা এসব এলাকার মানুষ বিএনপির সময় সিকিভাগও চোখে দেখেনি।’

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নামে বিএনপি নতুন যে জোট করেছে তাকে ‘জগাখিচুড়ি মার্কা’ ঐক্য বলে মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের। এই ঐক্যে বিএনপির অবস্থা এখন ভঙ্গুর, নির্বাচনে আগে দলটির অবস্থা আরও এলোমেলো হয়ে যাবে বলে মনে করেন তিনি।

বিএনপির সমালোচনা করে কাদের বলেন, ‘বিএনপি ঘর গোছাতে পারেনি, জগাখিচুড়ি ঐক্যের পরিণতি তারা পদে পদে অনুভব করছে। যার কারণে তাদের সেক্রেটারি জেনারেলের অফিসে গিয়ে মনোনয়নবঞ্চিতরা হামলা চালাচ্ছে। যাদের কাছ থেকে টাকা নিয়েছে, যারা মনোনয়ন পাননি, তারাই হামলা চালাচ্ছে।’

ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘এই ধরনের অভিযোগ আওয়ামী লীগে নেই। নির্বাচনের দিন যতই যাচ্ছে, ততই তাদের এ এলোমেলো অবস্থার জন্য তাদের এই জগাখিচুড়ি ঐক্য আজকে ভঙ্গুর অবস্থায় নিপতিত হয়েছে।’

এসময় উপস্থিত ছিলেন নোয়াখালী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. এবিএম জাফর উল্যাহ, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ডা. এ.কে.এম জাফর উল্যাহ, কবিরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আমিন রুমি, সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক রায়হান, নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবদুল কাদের মির্জা, সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহাব উদ্দিন, নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান বাদল, স্বাধীনতা ব্যাংকার্স পরিষদের সদস্য ফখরুল ইসলাম রাহাত প্রমুখ।

(ঢাকাটাইমস/০৮নভেম্বর/প্রতিনিধি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত