খুলনায় তিন আসনে নৌকার পাশাপাশি লাঙ্গল

খুলনা ব্যুরো, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ২২:২১

খুলনার ছয়টি আসনের তিনটিতেই আওয়ামী লীগের প্রার্থীর পাশাপাশি জাতীয় পার্টির তিনজন প্রার্থী বহাল রয়েছেন।

রবিবার মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনেও এ আসন তিনটিতে জাতীয় পার্টির প্রার্থীরা তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি। তবে এ আসনগুলোতে ধানের শীষের একজন করে প্রার্থী ছাড়া সকলেই মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন।

রবিবার মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে মোট নয়জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন।

জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. হেলাল হোসেনের নিকট তারা এ প্রত্যাহারপত্র জমা দেন।

এদিকে এ তিন আসনে মহাজোটের অন্যতম শরিক দল জাতীয় পার্টির প্রার্থীরা বহাল থাকায় ফুরফুরে আমেজে রয়েছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের প্রার্থীরা।

নৌকার পাশাপাশি লাঙ্গল নিয়ে বহাল থাকা প্রার্থীরা হলেন- খুলনা-১ আসনে সুনীল শুভ রায়, খুলনা-৫ আসনে মো. শহীদ আলম ও খুলনা-৬ আসনে শফিকুল ইসলাম মধু।

প্রত্যাহারকারী প্রার্থীরা হলেন-  খুলনা-১ আসনে গৌরাঙ্গ প্রসাদ রায় (ওয়াকার্স পার্টি), ননী গোপাল মন্ডল (স্বতন্ত্র) আওয়ামী লীগের সাবেক এমপি।

খুলনা-২ আসনে এস এম ইসলাম আলী (মুসলিম লীগ)।

খুলনা-৩ আসনে এস এম আরিফুর রহমান মিঠু (বিএনপি) ও আ ফ ম মহসীন (জেএসডি)।

খুলনা-৪ আসনে শরীফ শাহ কামাল (বিএনপি), এস এম সাখাওয়াত হোসাইন (খেলাফত মজলিস) ও হাদিউজ্জামান (জাতীয় পার্টি)।

খুলনা-৬ আয়ুব আলী (জেএসডি)।

এছাড়া রবিবার খুলনার ৫ আসন থেকে বিএনপির গাজী আব্দুল হক, ড. মামুন রহমান, খুলনা ৬ আসন থেকে বিএনপির শফিকুল আলম মনা ও জাতীয় পার্টির মোস্তফা কামালের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।

রিটানিং কর্মকর্তার দপ্তর সূত্র জানায়, খুলনার ছয়টি আসনে ৬০ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন। গত ২৮ নভেম্বর মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছে আ’লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মোট ৫১ জন প্রার্থী। ছয়টি আসনে মনোনয়ন দাখিলকারী ৫১ জন প্রার্থীর মধ্যে চারজনের মনোনয়ন বাতিল হয়ে ৪৭ জন প্রার্থী ছিল। পরে আপিলে একজনের প্রার্থিতা ফিরে পেলে সংখ্যা দাঁড়ায় ৪৮। রবিবার নয়জন প্রত্যাহার ও চারজনের মনোনয়ন বাতিলের মধ্য দিয়ে এখন প্রার্থীর সংখ্যা ৩৫ জন।

এরা হলেন, খুলনা-১ (দাকোপ-বটিয়াঘাটা) আসনে পঞ্চানন বিশ্বাস (আওয়ামী লীগ), আমীর এজাজ খান (বিএনপি), সুনীল শুভ রায় (জাতীয় পার্টি), মো. আবু সাঈদ (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ) ও অশোক কুমার সরকার (সিপিবি)।  খুলনা-২ (সদর-সোনাডাঙ্গা) আসনে শেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল (আওয়ামী লীগ), নজরুল ইসলাম মঞ্জু (বিএনপি), মো. আ. আউয়াল (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ), কে এম ইদ্রিস আলী বিল্টু (জাকের পার্টি), মনিরা বেগম (গণফ্রন্ট), এইচ এম শাহাদাৎ (কমিউনিস্ট পার্টি) ও এস এম সোহাগ (বিএনএফ)। খুলনা-৩ (দৌলতপুর-খালিশপুর-খানজাহান আলী) আসনে বেগম মন্নুজান সুফিয়ান (আওয়ামী লীগ), রকিবুল ইসলাম বকুল (বিএনপি), মো. মুজাম্মিল হক (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ), এস এম সাব্বির হোসেন (জাকের পার্টি) ও জনার্দন দত্ত (বাসদ)।

খুলনা-৪ (দিঘলিয়া-তেরখাদা-রূপসা) আসনে আব্দুস সালাম মুর্শেদী (আওয়ামী লীগ), আজিজুল বারী হেলাল (বিএনপি), ইউনুস আহম্মেদ সেখ (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ), কে এম আলী দাদ (বিপ্লবী ওয়াকার্স পার্টি), শেখ হাবিবুর রহমান (বিএনএফ) ও আনসার আলী (জাকের পার্টি)।

খুলনা-৫ (ফুলতলা-ডুমুরিয়া) আসনে নারায়ন চন্দ্র চন্দ (আওয়ামী লীগ), মিয়া গোলাম পরওয়ার (জামায়াত), চিত্ত রঞ্জন গোলদার (সিপিবি), শেখ মুজিবুর রহমান (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ) ও মো. শহীদ আলম (জাতীয় পার্টি)।

খুলনা-৬ (কয়রা-পাইকগাছা) আসনে মো. আক্তারুজ্জামান বাবু (আওয়ামী লীগ), মো. আবুল কালাম আজাদ (জামায়াত), শফিকুল ইসলাম মধু (জাতীয় পার্টি), মির্জা গোলাম আজম ওরফে মির্জা আজম (বিএনএফ), গাজী নূর আহমাদ (ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ), শেখ মুর্তজা আল মামুন (জাকের পার্টি), সুবাস চন্দ্র সাহা (সিপিবি)। 

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে খুলনার ছয়টি  আসনে মোট ভোটার ১৮ লাখ ৯৮৯ জন। নারী ভোটার ৮ লাখ ৯৮ হাজার ৩৯ জন ও পুরুষ ভোটার ৯ লাখ ২ হাজার ৯৫০ জন। মোট ভোট কেন্দ্র ৭৮৬টি ও ভোট গ্রহণ কক্ষ তিন হাজার ৭৮৯টি।

(ঢাকাটাইমস/৯ডিসেম্বর/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় নির্বাচন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :