শেষ পর্যন্ত জাপা ছাড় পেল ২৭ আসনে

নিজস্ব প্রতিবেদক
 | প্রকাশিত : ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৩:০১

আসন্ন সংসদ নির্বাচনে ১৭২ আসনে ‘লাঙ্গল’ প্রতীকে জাতীয় পার্টি (জাপা) ভোট করবে বলে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) জানিয়েছে দলটি। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের হয়ে ২৭ আসনে ভোট করবে এরশাদের দলটি। আর বাকি আসনগুলো উন্মুক্ত থাকবে।

গতকাল বিকালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে অবস্থিত নির্বাচন কমিশনে এই তালিকা জমা দেয় জাপা। জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ফয়সল চিশতী বলেন, ‘জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে মহাজোটের ২৯ প্রার্থী ও জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে ১৪৩ জন প্রার্থী উন্মুক্তভাবে অংশ নেবেন। মোট ১৭২টি নাম কমিশনে জমা দিয়েছি।’

বলেন, ‘শুরুতে ১৩২ জন উন্মুক্ত থাকলেও এখন তা বেড়ে ১৪৩ জন করা হয়েছে। আমরা কখনই নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করিনি। যদিও মহাজাটে থেকে নির্বাচন করব, তবুও লাঙ্গল প্রতীকেই নির্বাচন করব।’

পরে অবশ্য নির্বাচন কমিশনে আওয়ামী লীগ ২৫৮টি আসনে দলীয় প্রার্থী দেওয়ার কথা জানানো হয়। আর নৌকা প্রতীকে লড়বে আরও ১৫ জন শরিক দলের নেতারা। জাতীয় পার্টির জন্য থাকে বাকি ২৭ আসন।

মহাজোটে জাপার প্রার্থী যারা

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট থেকে জাপার প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন নীলফামারী-৩: রানা মোহাম্মদ সোহেল; নীলফামারী-৪: আহসান আদেলুর রহমান; লালমনিরহাট-৩: গোলাম মোহাম্মদ কাদের; রংপুর-১: মসিউর রহমান রাঙ্গা; রংপুর-৩: হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ; কুড়িগ্রাম-২: পনির উদ্দিন আহমেদ; গাইবান্ধা-১: শামীম হায়দার পাটোয়ারী; বগুড়া-২: শরিফুল ইসলাম জিন্নাহ; বগুড়া-৩: নুরুল ইসলাম তালুকদার; বগুড়া-৬: নুরুল ইসলাম ওমর; বগুড়া-৭: আলতাফ আলী; বরিশাল-৬: নাসরিন জাহান রতœা; পিরোজপুর-৩: রুস্তম আলী ফরাজী; টাঙ্গাইল-৫: শফিউল্লাহ আল মুনির; ময়মনসিংহ-৪: বেগম রওশন এরশাদ; ময়মনসিংহ-৮ ফখরুল ইমাম; কিশোরগঞ্জ-৩: মজিবুল হক চুন্নু; ঢাকা-৪: সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা; ঢাকা-৬: কাজী ফিরোজ রশীদ; নারায়ণগঞ্জ-৩: লিয়াকত হোসেন খোকা; নারায়ণগঞ্জ-৫: সেলিম ওসমান; সুনামগঞ্জ-৪: পীর ফজলুর রহমান মিজবাহ; সিলেট-২: ইয়াহ ইয়া চৌধুরী; ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২: জিয়াউল হক মৃধা; ফেনী-৩: মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী; লক্ষ্মীপুর-২: মো. নোমান এবং চট্টগ্রাম-৫: আনিসুল ইসলাম মাহমুদ।

জাতীয় পার্টির উন্মুক্ত প্রার্থী যারা
রংপুর-২: আসাদুজ্জামান চৌধুরী শাবলু; কুড়িগ্রাম-১ এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান, কুড়িগ্রাম-৩: আক্কাস আলী সরকার; কুড়িগ্রাম-৪আশরাফ উদ দৌলা; গাইবান্ধা-৩: ব্যারিস্টার দিলারা খন্দকার শিল্পী; খুলনা-১: সুনীল শুভ রায়; সাতক্ষীরা-১: সৈয়দ দিদার বখত; সাতক্ষীরা-২: শেখ মাতলুব হোসেন লিয়ন; সাতক্ষীরা-৪: আব্দুস সাত্তার মোড়ল; জামালাপুর-৪: মোখলেছুর রহমান; শেরপুর-১: ইলিয়াস উদ্দিন; শেরপুর-৩: আবু নাসের; সিলেট-৫: সেলিম উদ্দিন; ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫: কাজী মামুনুর রশীদ; পঞ্চগড়-১: আবু সালেক; পঞ্চগড়-২: লুৎফর রহমান রিপন; ঠাকুরগাঁও-৩: হাফিজ উদ্দিন; দিনাজপুর-১: শাহীনুর ইসলাম; দিনাজপুর-২: জুলফিকার হোসেন; দিনাজপুর-৪: মোনাজাত চৌধুরী; দিনাজপুর-৫: সোলায়মান সামী; দিনাজপুর-৬: দেলোয়ার হোসেন।

নীলফামারী-১: জাফর ইকবাল সিদ্দিকী; লালমনিরহাট-১: খালেদ আখতার; রংপুর-৪: মোস্তফা সেলিম বেঙ্গল; রংপুর-৫ ফখরুজ্জামান জাহাঙ্গীর; গাইবান্ধা-৪: আসনে কাজী মো. মশিউর রহমান; গাইবান্ধা-৫: এ এইচ এম গোলাম শহীদ রঞ্জু; জয়পুরহাট-১: আ স ম মোক্তাদির তিতাস; জয়পুরহাট-২: কাজী মো. আবুল কাশেম; বগুড়া-৪: নুরুল আমিন বাচ্চু; বগুড়া-৫: তাজ মোহাম্মদ শেখ; নওগাঁ-১: আকবর আলী কালু; নওগা-২: বদিউজ্জামান; নওগাঁ-৩: তোফাজ্জল হোসেন; নওগাঁ-৪: এনামুল হক; রাজশাহী-২: খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান; রাজশাহী-৫: আবুল হোসেন; রাজশাহী-৬: ইকবাল হোসেন; নাটোর-১: আবু তালহা; নাটোর-২: মুজিবুর রহমান সেন্টু; নাটোর-৩: আনিসুর রহমান; সিরাজগঞ্জ-৩: আলমগীর হোসেন।

পাবনা-১: সরদার শাহজাহান; পাবনা-৫: আব্দুল কাদের খান; মেহেরপুর-১: আব্দুল হামিদ; মেহেরপুর-২: কেতাব আলী; কুষ্টিয়া-১: শাহারিয়ার জামিল; কুষ্টিয়া-৪: আশরাফুল সোলাইমান; চুয়াডাঙ্গা-১: সোহরাব হোসেন; যশোর-২: এবিএম সেলিম রেজা; যশোর-৩: জাহাঙ্গীর হোসেন; যশোর-৪: জহুরুল হক; যশোর-৫: এমএ হালিম; যশোর-৬: মাহাবুব আলম; মাগুরা-১: হাসান সিরাজ; নড়াইল-১: মিল্টন মোল্যা; নড়াইল-২: খন্দকার ফায়েকুজ্জামান; বাগেরহাট-৩: সেকেন্দার আলী মনি; বাগেরহাট-৪: সোমনাথ দে; খুলনা-৪: হাদিউজ্জামান; খুলনা-৫: শহীদ আলম; খুলনা-৬: শফিকুল ইসলাম মধু।

বরিশাল-৩: গোলাম কিবরিয়া টিপু; বরগুনা-২: মিজানুর রহমান মল্লিক; পটুয়াখালী-৩: সাইফুল ইসলাম; পটুয়াখালী-৪: আনোয়ার হোসেন; ভোলা-১: কেফায়েত উল্লাহ নজিব; ভোলা-৩: নুরুন্নবী সুমন; বরিশাল-২: সোহেল রানা; বরিশাল-৫: এ কে এম মর্তুজা আবেদীন; ঝালকাঠি-১: এমএ কুদ্দুস খান; ঝালকাঠি-২: এমএ কুদ্দুস খান; পিরোজপুর-১: নজরুল ইসলাম।

টাঙ্গাইল-৪: সৈয়দ মোস্তাক হোসেন রতন; টাঙ্গাইল-৭: জহিরুল ইসলাম জহির; জামালপুর-১: আব্দুস সাত্তার; জামালপুর-২: মোস্তফা আল মাহমুদ; জামালপুর-৩: মঞ্জুর আহাদ হেলাল; ময়মনসিংহ-৫: সালাউদ্দিন আহমেদ মুক্তি; ময়মনসিংহ-৬: কেআর ইসলাম; ময়মনসিংহ-৭: বেগম রওশন এরশাদ; ময়মনসিংহ-৯: হাসনাত মাহমুদ তালহা; নেত্রকোণা-৩: জসীম উদ্দিন ভূঁইয়া; কিশোরগঞ্জ-৬: নুরুল কাদের সোহেল; মানিকগঞ্জ-৩: জহিরুল আলম রুবেল; মুন্সীগঞ্জ-১: শেখ সিরাজুল ইসলাম; মুন্সিগঞ্জ-৩: গোলাম মোহাম্মদ রাজু।

ঢাকা-২: শাকিল আহমেদ শাকিল; ঢাকা-৭: তারেক আহমেদ আদেল; ঢাকা-৮: ইউনুস আলী আকন্দ; ঢাকা-১০: হেলাল উদ্দিন; ঢাকা-১১: এস এম ফয়সল চিশতী; ঢাকা-১২: নাসির উদ্দিন সরকার; ঢাকা-১৩: শফিকুল ইসলাম সেন্টু; ঢাকা-১৪: মোস্তাকুর রহমান; ঢাকা-১৫: শামসুল হক; ঢাকা-১৭: এইচ এম এরশাদ; ঢাকা-১৯: কাজী আবুল কালাম আজাদ; ঢাকা-২০: খান মো. ইসরাফিল; গাজীপুর-৩: আফতাব উদ্দিন আহমেদ; গাজীপুর-৫: রাহেলা পারভীন শিশির; নরসিংদী-১: শফিকুল ইসলাম; নরসিংদী-২: আজম খান; নরসিংদী-৩: আলমগীর কবির; নরসিংদী-৪: নেওয়াজ আলী ভূঁইয়া; নরসিংদী-৫: এমএ সাত্তার; নারায়ণগঞ্জ-১: আজম খান; রাজবাড়ী-১: আক্তারুজ্জামান হাসান; রাজবাড়ী-২: এ বি এম নুরুল ইসলাম; শরীয়তপুর-৩: আবুল হাসান।

সুনামগঞ্জ-৫: নাজমুল হুদা; সিলেট-১: মাহাবুবুর রহমান চৌধুরী; সিলেট-৩: ওসমান আলী; সিলেট-৪: আহমেদ তাজ উদ্দিন তাজ রহমান; মৌলভীবাজার-২: মাহাবুবুল আলম শামীম; হবিগঞ্জ-১: আতিকুর রহমান; হবিগঞ্জ-২: শংকর পাল; হবিগঞ্জ-৩: আতিকুর রহমান।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪: তারেক এ আদেল; কুমিল্লা-১: আবু জায়েদ আল মাহমুদ; কুমিল্লা-২: আমির হোসেন; কুমিল্লা-৩: আলমগীর হোসেন; কুমিল্লা-৪: ইকবাল হোসেন রাজু; কুমিল্লা-৫: তাজুল ইসলাম; কুমিল্লা-৭: লুৎফর রেজা; কুমিল্লা-৮: নুরুল ইসলাম মিলন; কুমিল্লা-৯: এটিএম আলমগীর; কুমিল্লা-১১: খায়ের আহমেদ ভূঁইয়া; চাঁদপুর-১: এমদাদুল হক; চাঁদপুর-২: এমরান হোসেন মিয়া; চাঁদপুর-৪: মাইনুল ইসলাম; নোয়াখালী-১: আবু নাসের ওয়াহেদ ফারুক; নোয়াখালী-২: হাসান মঞ্জুর; নোয়াখালী-৩: ফজলে এলাহী সোহাগ; নোয়াখালী-৪: মোবারক হোসেন; নোয়াখালী-৫: সাইফুল ইসলাম; নোয়াখালী-৬: নাসিম উদ্দিন বায়জিদ; লক্ষ্মীপুর-১: আলমগীর হোসেন; লক্ষ্মীপুর-৪: আব্দুর রাজ্জাক চৌধুরী; চট্টগ্রাম-২: জহুরুল ইসলাম রেজা; চট্টগ্রাম-৪: দিদারুল কবির; চট্টগ্রাম-৮: ফাতেমা খুরশীদ সোমাইয়া; চট্টগ্রাম-১২: নুরুচ্ছফা সরকার; চট্টগ্রাম-১৪: আবু জাফর মোহাম্মদ ওয়ালি উল্লাহ; খাগড়াছড়ি: সোলায়মান আলম শেঠ; রাঙামাটি: এএকে পারভেজ তালুকদার।

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত