‘প্রযোজনাও অভিনয়ের একটা অংশ’

বিনোদন ডেস্ক
 | প্রকাশিত : ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৬:১৭

নিজের প্রথম প্রযোজনায় চমক লাগিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। নির্মাণে-অভিনয়ে এমনকি বিজ্ঞাপনে জয়া আহসান প্রযোজিত ‘দেবী’ ছিল অনবদ্য। টিব্যাগে সিনেমার পোস্টার রিলিজ, জয়া-চঞ্চলের সংবাদ পাঠ, জাদু প্রদর্শনীসহ বেশ কিছু নতুন কৌশলে প্রচারণা চালিয়েছিল টিম দেবী। প্রথম সিনেমার সফলতার পর এবার জয়া আহসানের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান  সিতে সিনেমা ঘোষণা দিল দ্বিতীয় সিনেমা প্রযোজনার। সিনেমার নাম ‘ফুড়ুৎ’। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা টাইমসের মুখোমুখি হয়ে  নন্দিত এই অভিনেত্রী কথা বলেছেন- রুদ্র রুদ্রাক্ষের সঙ্গে।

‘দেবী’ রেশ না কাটতেই ‘ফুড়ুৎ’ একটু দ্রুত হয়ে গেল কী?
-একদম না। ঘোষণা দেওয়া মানেই তো কাজ শুরু করা না। প্রিপ্রোডাকশনে আমি বেশি সময় নেওয়ার পক্ষপাতী। প্রিপ্রোডাকশনে যত সময় নেবেন, একটা সিনেমা তত নিখুঁত হবে।

নতুন সিনেমায় কী কী চমক থাকছে?
-নামটাই তো একটা চমক। বাকি চমক আর কদিন পড়ে দেব।

শোনা যাচ্ছে আপনার পরের সিনেমায় নায়ক কলকাতা থেকে নেওয়া হবে, এর সত্যতা কতটুকু?
-এমনও তো হতে পারে আমার পরের সিনেমায় কোনো নায়কই থাকছে না, গল্পটাই হতে যাচ্ছে মূল নায়ক।

নায়িকা হিসেবে কী আপনিই থাকছেন?
-চাচ্ছি না। আবার থাকতেও পারি। এখনো নিশ্চিত করে বলতে পারছি না।

কমার্শিয়াল ঘরানার সিনেমা থেকে বের হয়ে  দেবী, আয়নাবাজির মতো সিনেমা ব্যবসাসফল হয়েছে, এগুলোর ক্ষেত্রে প্রচারণার ভূমিকা কতটুকু?
-প্রচারণা একটা পণ্যের দ্বিতীয় প্রয়োজন। প্রথম প্রয়োজন গুণগত মান। দেবী সিনেমায় সে মান ছিল। এরপর তার সঙ্গে যোগ করতে হয়েছে প্রচারণা। প্রচারণা ছাড়া তো মানুষ জানতেই পারবে না যে একটা পণ্য বাজারে এসেছে। আমার কাছে মনে হয় প্রত্যকটা ইউনিটে মার্কেটিং এক্সপার্ট রাখা দরকার। প্রতিদিন প্রচারণার নতুন নতুন কৌশল আবিষ্কার করা অত্যন্ত জরুরি। যেমন ধরুন- আমার দেবী সিনেমার প্রচারণার কৌশল যেটা ছিল, সেটা দিয়েই যদি আমি পরের সিনেমার প্রচারণা চালাই তাহলে তো হবে না। দুটি সম্পূর্ণ আলাদা সিনেমা, আলাদা দুটি প্রোডাক্ট। সুতরাং দুটির প্রচার কৌশল হতে হবে দুরকম। আমি প্রযোজকের জায়গা থেকে প্রত্যকটা প্রযোজককে অনুরোধ জানাব প্রচারণায় নতুন কৌশল যোগ করার জন্য। সিনেমার গুণগত মান যেমন জরুরি, তেমন জরুরি স্মার্ট প্রচার কৌশল।
প্রযোজক না অভিনেত্রী কোন চরিত্রটা জয়া হাসানের বেশি পছন্দের?
-অবশ্যই অভিনেত্রী। আমি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত একজন অভিনেত্রীই।

তাহলে প্রযোজনায় কেন এলেন?
-প্রযোজনাও অভিনয়ের একটা পার্ট, এটা আমার কাছে মনে হয়। একজন প্রযোজকের চোখে সমস্ত ইউনিট দেখা অভিনয় ক্যারিয়ারে অনেক বড় ভূমিকা রাখে।

নিজেকে সফল প্রযোজক ভাবছেন?
-উহু, একটা সিনেমা ক্লিক করলেই সে সফল প্রযোজক হয়ে যায় না। একজন প্রযোজকের নামের আগে সফল তকমা যোগ হওয়ার জন্য ন্যূনতম তিনটি ভালো সিনেমা থাকতে হয় বলে আমি মনে করি।

‘ফুড়ুৎ’ নিয়ে কতটুকু আশাবাদী?
-ফুড়ুৎ আরেকটা মাইলফলক হতে যাচ্ছে বলেই আমার বিশ্বাস। এই ছবিটি কমেডি, ড্রামা, নস্টালজিয়া, ড্রিমস কামট্রুথ- এক কথায় এটি একটি আধুনিক রূপকথা; কিন্তু মানুষগুলো আসল। এই চিত্রায়নে মানুষ মুগ্ধ হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :