কুম্বলেকে কোচের দায়িত্ব থেকে সরিয়েছিলেন কোহলি!

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:৫২ | প্রকাশিত : ১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:৪২

শোনা যায়, দলের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) ওপর যথেষ্ট প্রভাব বিস্তার করেন তিনি। বিরাট কোহলি যে কতটা ক্ষমতাধর, সম্প্রতি ফাঁস হওয়া এক মেইলেই তার প্রমাণ মিলেছে। বিসিসিআইয়ের গুরুত্বপূর্ণ এক সদস্যের ওই মেইলে দাবি করা হয়েছে, অনিল কুম্বলের পদত্যাগের পেছনে কলকাঠি নেড়েছিলেন তিনিই।

বিসিসিআইয়ের কমিটি অব অ্যাডমিনিস্ট্রেটরসের (সিওএ) সদস্য ডায়না এডুলজির ফাঁস হওয়া ওই মেইলে বলা হয়েছে, কুম্বলে কোচ থাকাকালীন বিসিসিআইয়ের প্রধান নির্বাহী রাহুল জোহরির কাছে নিয়মিত খুদেবার্তা পাঠাতেন কোহলি। সেসব বার্তায় কোচের নেতিবাচক দিকগুলোই তুলে ধরতেন তিনি। অথচ কুম্বলের অধীনে দারুণ সফল ছিল ভারত। ১৭ টেস্টের মাত্র একটিতে হেরেছিল তারা। পুনরুদ্ধার করেছিল র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ স্থান। 

এক বছরের চুক্তিতে ভারতে ঈর্ষণীয় সাফল্য এনে দেয়া কুম্বলেকেই পছন্দ করেছিল বিসিসিআইয়ের ক্রিকেট অ্যাডভাইসরি কমিটি (সিএসি)। ওই কমিটিতে আছেন শচিন টেন্ডুলকার, ভিভিএস লক্ষ্মণ আর সৌরভ গাঙ্গুলির মত সাবেক তারকারা। কিন্তু কোহলির সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় কুম্বলে দায়িত্ব থেকে পদত্যাগ করেন। কারণ হিসেবে তখন তিনি বলেছিলেন, ‘আমার কোচিং পদ্ধতিতে কোহলির আপত্তি আছে। কাজেই তার সঙ্গে জুটি চালিয়ে যাওয়া আর সম্ভব নয়।’

কুম্বলে দায়িত্ব ছেড়ে দেয়ার পর তার স্থলাভিষিক্ত হন রবি শাস্ত্রী, যাকে আবার কোহলির পছন্দ। ফাঁস হওয়া মেইলে ডায়ানা বলেছেন, ‘সিএসির সুপারিশ সত্ত্বেও বিরাট কুম্বলেকে কোচ হিসেবে চাননি। বিষয়টি কুম্বলের জন্য অপমানজনক ছিল এবং তাকে খলনায়ক বানানো হয়েছে। তিনি যোগ্য লোক ছিলেন। অথচ তাকে সরিয়ে বিসিসিআইয়ের নিয়ম ভেঙে শাস্ত্রীকে দায়িত্ব দেয়া হল। আমি তখন এর প্রতিবাদ করেছিলাম।’ 

(ঢাকাটাইমস/১২ ডিসেম্বর/এবিএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত