আ.লীগের ওপর হামলার অভিযোগ নিয়ে ইসিতে ইমাম

নিজস্ব প্রতিবেদক
 | প্রকাশিত : ১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১:২৯
ফাইল ছবি

নির্বাচনী প্রচারে বিভিন্ন আসনে আওয়ামী লীগ সমর্থকদের ওপর হামলার অভিযোগ করেছে দলটি। নির্বাচন কমিশনে দিয়ে ক্ষমতাসীন দলের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো চেয়ারম্যান এইচ টি ইমাম এই অভিযোগ জমা দিয়ে এসেছেন।

দ্বিতীয় দিন থেকে দেশের বিভিন্ন এলাকায় সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। হামলা হয়েছে বিভিন্ন প্রার্থীর গাড়িবহরে। ফরিদপুরে খুন করা হয়েছে এক আওয়ামী লীগ নেতাকে, নোয়াখালীতে খুন হয়েছেন এক বিএনপি নেতা।

বুধবার বিকালে নির্বাচন ভবনে ইমামের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দল প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ (সিইসি) নির্বাচন কমিশনারদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এইচ টি ইমাম সাংবাদিকদের বলেন, ‘পটুয়াখালী, ময়মনসিংহের ফুলপুর, মানিকগঞ্জের সিংগাইর, পাবনার শাহাজাদপুর ও নরসিংদী জেলায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালিয়েছে এবং তাদের ঘরবাড়ি ভাংচুর করেছে।’

‘নির্বাচন কমিশনকে আমরা সতর্ক করলাম এসব ঘটনায় দায়ীদের বিরুদ্ধে এখনই ব্যবস্থা নিতে আমরা কমিশনকে অনুরোধ করেছি। অপরাধীদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়া হোক।’

এর আগে অভিযোগ নিয়ে নির্বাচন কমিশনে যায় বিএনপির প্রতিনিধি দলও। এইচ টি ইমাম  বলেন, ‘সব অভিযোগের বিষয়ে কমিশন জানত না। আমরা তাদের অবহিত করলাম। আলোচনা করে তারা ব্যবস্থা নেবেন বলে আমাদের আশ্বাস দিয়েছে।’

এর আগে সকালে সিইসি ভোটের সহিংসতায় প্রাণহানি ও বিভিন্ন প্রার্থীর গাড়িবহরে হামলা নিয়ে কথা বলেন। এসব ঘটনায় তিনি মর্মাহত বলে জানান। রাজনৈতিক দলগুলোকে সহনশীল হওয়ারও অনুরোধ করেন তিনি।

এইচটি ইমাম বলেন, ‘ ইসি আমাদের বৃহত্তম দল হিসেবে আমাদের দায়িত্বের বিষয়টি উল্লেখ করলে আমরা আমাদের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করছি বলে জানিয়েছি। আমরা বলেছি, আমাদের আক্রমণ করলে রক্ষা তো আপনাদেরই করতে হবে। সেক্ষেত্রে কমিশনও তাদের দায়িত্ব পালন করবেন বলে জানিয়েছি।’
‘সারাদেশে যেসব হামলা ও সহিসতা হয়েছে মোটামুটিভাবে তার বেশিরভাগই আওয়ামী লীগের উপর হয়েছে। আমাদের দুইজন সদস্য নিহত হয়েছেন, যারা তৃণমুলে নির্বাচনী কাজে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতেন। বেছে বেছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উপর আক্রমণ মোটেও গ্রহণযোগ্য নয়।’
ফখরুলের বহরে হামলা মনোনয়ন বাণিজ্যের কারণে

আগের দিন ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গাড়িবহরে হামলায় বিএনপির একটি অংশ জড়িত বলেও অভিযোগ করেন ইমাম। বলেন, ‘বিএনপির মনোনয়ন বাণিজ্যে গুলশান ও নয়পল্টন অফিসে মনোনয়ন বাণিজ্য নিয়ে যে তুমুল তোলপাড় হয়েছিল, সেটার বহিঃপ্রকাশ ঠাকুরগাঁওয়ে হয়েছে। তারা নিজেরা মারামারি করেছে। সেখানে আওয়ামী লীগের কেউ ছিল না। তিনি (ফখরুল) যে সেখানে যাবেন সেটি পুলিশকে জানাননি।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত