কিশোরগঞ্জ-১

আশরাফের জন্য ‘ভোটই দোয়া’

আমিনুল হক সাদী, কিশোরগঞ্জ
 | প্রকাশিত : ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৮:৪৭
আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলনে শেখ হাসিনা ও ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে সৈয়দ আশরাফ

তিনটি নির্বাচনের প্রতিটিতেই জিতেছেন। কিন্তু শারীরিক অসুস্থতার জন্য এবার জনগণের কাছ থেকে দূরে। নিজের ভোট চাইবেন, এমন পরিস্থিতিও নেই। তবে তার সশরীরে না থাকায় নির্বাচনে কোনো প্রভাব পড়ছে না। বরং তাকে জেতাতে দলের নেতা-কর্মীরা দ্বিগুণ উৎসাহে নেমে পড়েছেন।

কিশোরগঞ্জ সদর ও হোসেনপুর উপজেলা নিয়ে গঠিত কিশোরগঞ্জ-১ আসনে এবারও নৌকার প্রার্থী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। সজ্জন এই রাজনীতিকের জনপ্রিয়তা সারা দেশেই তুঙ্গে। নিজ এলাকায় তো কথাই নেই।

তবে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় থাইল্যান্ডে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আশরাফের এবার ভোট করা হবে কি না, এ নিয়ে সংশয় ছিল। বিকল্প প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেওয়া হয় মশিউর রহমান হুমায়ুনকে। তবে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার পর এই নেতার শারীরিক অবস্থার নাটকীয় উন্নতি হয় এবং তাকেই প্রার্থী রাখে ক্ষমতাসীন দল।

আশরাফ এলাকায় না থাকলেও তার পক্ষে এবার প্রচার চলছে বিপুল উদ্যমে। তার ভাই সৈয়দ শাফায়েতুল ইসলাম, বিকল্প প্রার্থী মশিউর রহমান হুমায়ুন, মনোনয়নপ্রত্যাশী শরীফ আহমেদ সাদী, চাচাতো ভাই সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম টিটোসহ দলের স্থানীয় নেতারা সকাল থেকে গভীর রাত অবধি যাচ্ছেন ভোটারের কাছে। আশরাফের জন্য দোয়া চাইছেন, আহ্বান জানাচ্ছেন ভোট দেওয়ার।

নৌকার মনোনয়নপ্রত্যাশীদের একজন শরীফ আহমেদ সাদী ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘আশরাফ ভাই আমাদের পাশে না থাকলেও তিনি এখন আরও বেশি শক্তিশালী। আমরা তার জন্য দোয়া চাচ্ছি। আর ভোটাররা বলছেন, তারা ভোটের মাধ্যমেই দোয়া করবেন। তারা বলছেন, ভোটই দোয়া, আশরাফ সুস্থ হয়ে ফিরে আসবেন তাদের কাছে।’

‘যে রকম সাড়া পাচ্ছি, তাতে আমার ধারণা, আশরাফ এ বছর আগের বারের চেয়ে বেশি ভোটে জিতবেন’Ñবলছিলেন শরীফ সাদী।

কিশোরগঞ্জ জজকোর্টের পাবলিক প্রসিকিউটর শাহ আজিজুল হক বলেন, ‘সৈয়দ আশরাফ একজন নির্লোভ রাজনীতিবিদ হওয়ায় স্ত্রীর অসুস্থতার জন্য অনেক আগেই তার একমাত্র ফ্ল্যাটটি বিক্রি করে দিতে হয়েছে। দীর্ঘদিন মন্ত্রিত্বে থাকা সত্ত্বেও প্রার্থীদের মধ্যে তিনিই সবচেয়ে সম্পদহীন। তিনি এখন অসুস্থ। অনুপস্থিতিতে জনগণের আশরাফ এখন আরও বেশি শক্তিশালী।’

গতকাল দুপুরে হোসেনপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের নির্বাচনী সভায় বক্তৃতা করেন সাফায়েতুল ইসলাম, মশিউর রহমান হুমায়ুন। এ সময় আশরাফের জন্য দোয়া এবং নৌকা প্রতীকে ভোট চান তার ভাই।

এই আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নের চিঠি পাওয়া হুমায়ুন বলেন, ‘আমি আগেও বলেছি এখনো বলছি, আশরাফ ভাই আমাদের আবেগের জায়গা, আমাদের সম্পদ। আসুন আমরা সকল ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে আশরাফ ভাইকে বিজয়ী করে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে সম্মান জানাই।’

এই আসনে গত তিনবারের প্রার্থী মাসুদ হেলালীকে পাল্টে বিএনপি মার্কা দিয়েছে রেজাউল করিম খান চুন্নুকে। তিনিও প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনিও সদর ও হোসেনপুরে বিভিন্ন পথসভা, উঠান বৈঠকসহ নির্বাচনী প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন।

জেলা বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাংগঠনিক সম্পাদক জালাল আহমেদ আশাবাদী এবার পরিস্থিতি পাল্টাবে। তিনি বলেন, ‘রেজাউল করিম খান চুন্নু একজন আদর্শবান মানুষ। তাকে বিজয়ী করতে তিনি সবার কাছে দোয়া ও সহযোগিতা চেয়েছেন।’

সিপিবির এনামুল হক কাস্তে, জেএসডির আবদুর রহমান তারা এবং ইসলামী আন্দোলনের মহিউদ্দিন হাতপাখা নিয়ে মাঠে আছেন। তবে তাদের খুব বেশি প্রভাব নেই।

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :