গাজীপুরে বিএনপির প্রার্থী মিলন গ্রেপ্তার

গাজীপুর প্রতিবেদক
 | প্রকাশিত : ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৮:৩২

নাশকতার মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা থাকার কথা জানিয়ে গাজীপুর-৫ আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ফজলুল হক মিলনকে গ্রেপ্তার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তবে বিএনপি নেতার সমর্থকরা এগুলোকে রাজনৈতিক মামলা উল্লেখ করে এই পদক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছেন।।

বৃহস্পতিবার বেলা আড়াইটার দিকে গ্রামের বাড়ি কালীগঞ্জ উপজেলার বর্তুল এলাকা থেকে মিলনকে গ্রেপ্তার করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

স্থানীয়রা জানান, মিলন দীর্ঘদিন ধরেই এলাকায় ছিলেন না। গত সোমবার ভোটের প্রচার শুরু হলেও তিনি এতদিন এলাকায় ছিলেন না। গতকালই প্রথম যান নিজ বাড়িতে। শুরু করেন প্রচারের প্রস্তুতি। কিন্তু খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন গোয়েন্দারা। নিয়ে যান মিলনকে।

গাজীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোলাম সবুর ঢাকা টাইমসকে জানান, ফজলুল হকের বিরুদ্ধে ঢাকার বিভিন্ন থানার ১৫টি মামলা রয়েছে। এসব মামলার ১৩টিতে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে।

তবে বিএনপির নেতাকর্মীদের দাবি, মিলনকে এলাকায় না আসতে হুমকি দেয়া হচ্ছিল। কয়েকদিন আগে তার ঢাকার বাসায় রাতে অভিযান চালায় পুলিশ। বাসায় না থাকায় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেতে পারেনি। গ্রেপ্তার আতঙ্কে তিনি এতদিন এলাকায় আসেননি।

বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মাজহারুল আলম ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘তার বিরুদ্ধে যে মামলাগুলো আছে, সবগুলো রাজনৈতিক। নির্বাচনে যাতে বিএনপি না থাকে, সে জন্য এই কাজ করা হয়েছে।’

এই আসনে মিলনের প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মেহের আফরোজ চুমকি। তার পক্ষে গত সোমবার থেকেই ব্যাপক প্রচার শুরু হয়েছে। তবে ভোটের মাঠে বিএনপি এখানো সক্রিয় হয়নি সেভাবে।

২০০৮ সালে এই আসনে দুই প্রার্থী পরস্পরের মোকাবেলা করেছিলেন। সে সময় চুমকি এক লাখ ২৬ হাজার ২৯৮ ভোট পেয়ে জেতেন। আর মিলন পান ৭৫ হাজার ১১৮ ভোট।

আগের দিন ঢাকা-১ আসনে বিএনপির প্রার্থী আবু আশফাককেও কয়েক ঘণ্টার জন্য আটক করেছিল পুলিশ। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীটি পরে জানায়, এলাকায় উত্তেজনা দেখা দেওয়ার পর বিএনপি নেতাকে নিরাপত্তার জন্য তাদের হেফাজতে নেওয়া হয়েছিল কিছুক্ষণের জন্য।

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :