বাড়িতে হামলা, ভোটের আগে এলাকায় না আসার হুমকি

বরিশাল প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ২২:৪৩

বরিশাল-১ আসনের বিএনপি প্রার্থী এম. জহির উদ্দিন স্বপনের সমর্থকদের বাসা বাড়িতে হামলা ও স্বজনদের মারধরের ঘটনা ঘটেছে বলে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অভিযোগ করেন দলের নেতারা। আর ভোটগ্রহণের আগ পর্যন্ত বাড়ি না ফেরারও জন্যও হুমকি দেয়া হয় বলে অভিযোগ করেন তারা।

বুধবার গভীর রাতে উপজেলায় ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কর্মীরা এসব হামলা চালিয়েছেন বলে অভিযোগ বিএনপি নেতাদের।

জানা গেছে, গৌরনদী উপজেলা সদরের বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের ১১ নেতার বাড়িঘরে এ হামলা, ভাঙচুরসহ তাদের পরিবারের সদস্যদের মারধর করা হয়। এ সময় দরজা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে ওই নেতাদের খোঁজাখুঁজি করেন তারা। না পেয়ে পরিবারের সদস্যদের মারধর করেন।

এক পর্যায়ে তারা পরিবারের সদস্যদের হুমকি দিয়ে যান, আগামী ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনের আগে তারা যেন বাড়ি না ফেরে। বাড়ি ফিরলে তাদের দেখে নেয়া হবে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এবং বরিশাল-১ (গৌরনদী-আগৈলঝাড়া) আসনে ধানের শীষের প্রার্থী এম. জহির উদ্দিন স্বপন মুঠোফোনে জানান, বুধবার রাত ১টা থেকে আড়াইটা পর্যন্ত স্থানীয় যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ৫০টির অধিক মোটরসাইকেল নিয়ে তার ধানের শীষ নেতাকর্মীদের বাড়িঘরে হামলা চালায়। এ সময় তারা বিএনপি যুবদল ও ছাত্রদল নেতাদের পরিবারের সদস্যদের মারধর ও ত্রাস সৃষ্টি করে।

গৌরনদী পৌর বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক শরীফ জহির সাজ্জাদ হান্নানের স্ত্রী নাছরিন পারভীন জানান, রাত সোয়া ২টার দিকে ৫০টির অধিক মোটরসাইকেল নিয়ে স্থানীয় একজন পৌর কাউন্সিলরের নেতৃত্বে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের দেড় শতাধিক নেতাকমীরা আমাদের বাড়িতে এসে বসতঘরে হামলা চালায়। এক পর্যায়ে তারা দুদিক থেকে ঘরের দুটি দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে হান্নান শরীফকে খুঁজতে থাকে। তাকে না পেয়ে হামলাকারীরা আমার বড় ছেলে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ছাত্র জাহিদ হাসান শরীফের বুকে পিস্তল ঠেকিয়ে (বৃহস্পতিবার) দিনের মধ্যে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে এলাকা ছেড়ে চলে যেতে হুমকি দিয়ে যায়।

যুবদল নেতা সরদার এম.এ গফুর জানান, রাত ১টা ৫০ মিনিটের দিকে ৫০/৬০টি মোটরসাইকেল নিয়ে দেড় শতাধিক যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আমার বাড়িতে হামলা চালায়।

যুবদল নেতা বুলবুল সরদারও একই ধরণের অভিযোগ করেন।

এসব অভিযোগকে ভিত্তিহীন দাবি করে গৌরনদী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও গৌরনদী পৌর মেয়র হারিছুর রহমান বলেন, ইতোপূর্বে জহির উদ্দিন স্বপন দাবি করেছিলেন তাকে এলাকায় ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না। তিনি কিন্তু বিনা বাধায় নির্বিঘ্নে এলাকায় ঢুকেছেন। এখন আবার ইলেকশন কমিশনের কাছ থেকে বাড়তি সুবিধা নিতে সে ও বিএনপি নেতারা হামলার মিথ্যা গল্প তৈরি করে প্রচার করছেন।

(ঢাকাটাইমস/১৩ডিসেম্বর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত