আমজাদ ভাই, শুনতে পাচ্ছেন?

রুদ্র রুদ্রাক্ষ
 | প্রকাশিত : ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ২২:৫৯

‘কাকতালীয়ভাবে কখনো কখনো সংলাপেরা জীবন্ত হয়ে ওঠে। আজ আমজাদ ভাই মারা গেলেন আর আমাকেই কিছু একটা বলতে হবে। আমি বলছি ‘আমজাদ ভাই, আপনি কী শুনতে পাচ্ছেন? আপনি কী জানতেন আপনার মৃত্যুর পর আমাকেই স্মৃতিচারণা করতে হবে?

‘আপনার সেই সংলাপ ‘ক গোলাপী ক’ আমার জীবনের সঙ্গে মিলে গেল তো। আজ বলতে হচ্ছে আপনাকে ছাড়া ভালো থাকবে না ঢাকাই সিনেমা, ভালো থাকবে না পরিচিতজনেরা।’

সদ্যপ্রয়াত নির্মাতা আমজাদ হোসেনের মৃত্যুর পর ঢাকা টাইমসকে এভাবেই নিজের শোককাতরা জানাচ্ছিলেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী ববিতা। আমজাদ হোসেনের বিখ্যাত সব ছবির নায়িকা ছিলেন এই অভিনয়শিল্পী। তার ভাষায়, আমজাদ হোসেনের ছবিতেই তিনি (ববিতা) নিজেকে খুঁজে পেয়েছেন।
দেশের খ্যাতনামা চলচ্চিত্র নির্মাতা ও অভিনেতা আমজাদ হোসেন গতকাল বাংলাদেশ সময় বেলা তিনটায় ব্যাংককের একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

ববিতা বলেন,  ‘আমজাদ ভাই আমার দেখা অন্যতম শ্রেষ্ঠ নির্মাতা। জহির রায়হানের যোগ্য শিষ্য ছিলেন তিনি।’
‘শিল্পের সবগুলো শাখায় মুন্সিয়ানা দেখিয়েছেন আমজাদ হোসেন।’  বলতে থাকেন ববিতা, ‘উপন্যাস, নাটক, কবিতা এমন কোনো জায়গা নেই সাহিত্যের, যেখানে তিনি ছাপ রাখেননি। ওনার সিনেমা দেশের বাইরেও সমাদৃত হতো। মস্কো ফেস্টিভ্যালে  ‘গোলাপী এখন ট্রেনে'র প্রদর্শনী শেষে কলকাতার বিখ্যাত পরিচালক আমাকে বলেছিলেন, ‘বাহ ও-দেশেও তো দারুণ সিনেমা হচ্ছে’।  এটা ছিল আমজাদ ভাইয়ের একটা বড় অর্জন।’

‘বাণিজ্যিক ও শিল্পের মিথস্ক্রিয়া ছিল আমজাদ ভাইয়ের ছবিতে। আমরা দেখি কমার্শিয়াল ফিল্ম দেশীয় সিনেমা হলে চলে, আর আর্টফিল্ম দেখানো হয় ফেস্টিভ্যালে। আমজাদ ভাইয়ের সিনেমা যেমন প্রেক্ষাগৃহে  সুপারহিট হতো, তেমনি নিয়মিত অংশ নিত দেশি-বিদেশি ফেস্টিভ্যালে। সিনেমার সংজ্ঞা ভেঙে উনি ‘আমজাদ ফিল্ম’ প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হয়েছিলন।’

বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের পুরোধা এই নির্মাতার প্রয়াণে ববিতা স্মরণ করেন তার সঙ্গে কাজ করা বিভিন্ন চলচ্চিত্রের কথা।  আমজাদ হোসেনের সঙ্গে তিনি প্রথম কাজ করেন ‘নয়নমনি’ ছবিতে। ‘তখন আমি পুরোপুরি ব্যস্ত নায়িকা। সেই সময়ে আমজাদ ভাই আমাকে নির্বাচন করলেন। শর্ত ছিল কোনো ধরাবাঁধা শিডিউল থাকবে না। আমিও রাজি হয়ে গেলাম। এই সিনেমার জন্য বেশ কিছু সিনেমা ছেড়েও দিতে হয়েছিল আমাকে। এরপর তো ইতিহাস। ওনার বেশ কিছু দর্শকনন্দিত সিনেমাতে নায়িকা হিসেবে আমার নাম লেখা রইল।’ সজল চোখে বলেন ববিতা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত