ওজন কমাতে অভ্যাস বদলান

ফারজানা ওয়াজেদ স্মৃতি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১১:০৪

শরীরের ওজন বেড়ে গেলে অনেকেই দুশ্চিন্তা করেন। আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে নিজেকে দেখেই আঁতকে ওঠেন! বাড়তি ওজন নিয়ে নারী-পুরুষ উভয়েরই আক্ষেপ রয়েছে। 

আমরা শরীরের বাড়তি ওজন কমানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের ডায়েট গ্রহণ করি। ব্যায়ামও করি। অনেক সময় ডায়েট ও ব্যায়াম করেও ওজন কমানো যায় না, শুধু আমাদের দৈনন্দিন কিছু অভ্যাসের কারণে। এসব অভ্যাস ওজন কমাতে বাধা দেয়। এগুলো এড়িয়ে না চললে বাড়তি ওজন ঝরানো সম্ভব না।

সকালে নাস্তা না করা
আপনি যদি মনে করেন সকালে নাস্তা না করে আপনি ওজন কমাবেন তাহলে এটি আপনার ভুল ধারণা। ঘুম থেকে ওঠার দুই ঘণ্টার মধ্যে সকালের খাবার খাওয়া উচিত। সকালের নাস্তা সারাদিনে কাজে শক্তি প্রদান করে। ফ্যাট খাবার না খেয়ে প্রোটিনযুক্ত খাবার রাখুন সকালের মেনুতে। সকালে ভারি খাবার খান। সকালের থেকে কিছুটা কম দুপুরে এবং রাতে একদম হালকা খাবার খান।

অপর্যাপ্ত ঘুম
অনেকে বলে থাকেন বেশি ঘুমালে ওজন বেড়ে যায়। ঠিক তেমনি অপর্যাপ্ত ঘুমও ওজন বৃদ্ধির কারণ। আপনার শরীর যদি সঠিক বিশ্রাম না পায় তবে ক্যালোরি পোড়াতে ব্যর্থ হয় এবং ওজন বৃদ্ধি পেতে থাকে।

অতিরিক্ত ব্যায়াম করা
অনেকে ভাবেন যে পরিমাণ খাবার খাওয়া হবে ঠিক সে পরিমাণ ব্যায়াম করতে হবে। কিন্তু এটি ভুল ধারণা। এক্ষেত্রে আপনি ৮০ ভাগ খাবার খেলে ২০ ভাগ ব্যায়াম করে নিতে পারেন।

চিবিয়ে খান
আপনি যত বেশি চিবিয়ে খাবেন তত বেশি পেট ভরা অনুভব করবেন। খাবার চিবানের সময় এক ধরনের পাচক রস তৈরি হয়। যা আপনার মস্তিষ্কে পেট ভরার সংকেত প্রদান করে। কমপক্ষে বারো বার খাবার চিবিয়ে খাওয়া উচিত।

রাতের খাবার তাড়াতাড়ি
পুষ্টিবিদরা রাতের খাবার তাড়াতাড়ি খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। আপনি যদি রাত ১২টায় ঘুমাতে যান তবে সন্ধ্যা ৭টায় রাতের খাবার খান। ঘুমোতে যাওয়ার কয়েক ঘণ্টা আগে রাতের খাবার খেয়ে নিন।

দীর্ঘক্ষণ না খেয়ে থাকা
খাবারের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করা ওজন কমানোর ক্ষেত্রে বেশ কার্যকর। কিন্তু দীর্ঘক্ষণ না খেয়ে থাকা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো নয়। কার্বোহাইড্রেট বাদ দিয়ে শুধু সালাদ খেয়ে ওজন কমানো কোনো বুদ্ধিমানের কাজ নয়। সালাদের সঙ্গে কার্বোহাইড্রেট রাখুন। এতে করে শরীরে পাবেন সঠিক পুষ্টি।

হাঁটাচলা না করা
অনেকেই আছেন বাসা থেকে সামনের মোড়ে যাবেন অথচ রিকশা বা নিজস্ব গাড়ি ব্যবহার করেন। দ্বিতীয়তলার বাসা, তাও লিফট ব্যাবহার করছেন। ওজন কমানোর ক্ষেত্রে এসব এড়িয়ে চলুন। প্রতিদিন সময় করে হাঁটতে যান।

(ঢাকাটাইমস/১৫ডিসেম্বর/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত