১৫০ প্রার্থীর প্রচারে হামলার দাবি বিএনপির

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৫:২৭

নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা চালানোর সময় সারাদেশে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের ১৫০ জন প্রার্থীর ওপর আওয়ামী লীগের লোকজন এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনী হামলা করেছে বলে দাবি করেছে দলটি।

শনিবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এই দাবি করেন।

রিজভী বলেন, ‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সারাদেশে এখন পর্যন্ত বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের ১৫০ জন প্রার্থীর ওপর আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসী ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী হামলা করেছে। মূলত ৩০০ আসনেই বিএনপি প্রার্থীর সমর্থক ও নেতাকর্মীদের ওপর হামলা হয়েছে। পুলিশের উপস্থিতিতে এই হামলাগুলো হয়। সব আসনে বিএনপি প্রার্থীর পোস্টার লাগাতে বাধা দেওয়া হয়েছে, পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে। প্রায় সব প্রচারণার মাইক ভাঙচুর করা হয়েছে, ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে। ৩০০ আসনেই গণগ্রেপ্তার চলছে।’

রিজভী বলেন, ‘দুজন প্রার্থীকে কারাগারে আটক রাখা হয়েছে। খালেদা জিয়াসহ বেশ কয়েকজন প্রার্থীকে আইনি জটিলতা দেখিয়ে প্রার্থিতা অনিশ্চিত করে রাখা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী প্রার্থীদের ওপর গুলিবর্ষণ করেছে।’

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, ‘হামলা করার পর গতকাল (শুক্রবার) ড. কামাল হোসেনের নামে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা করা হয়েছে। এই মামলার মাধ্যমে সরকার যে বার্তা দিল, তা নিম্ন রুচির।’ তিনি বলেন, ‘খ্যাতিমান আইনজীবী ও দেশের সংবিধানপ্রণেতাকে মামলার মাধ্যমে যে অপমান করা হলো, সেটি সারা জাতিরই অপমান। এই ঘটনায় আবারও প্রমাণিত হলো, সরকার পরিচালিত হচ্ছে দুষ্কৃতকারীদের দ্বারা।’

দেশব্যাপী সহিংসতা, রক্তপাত ও পুলিশি আক্রমণের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ দিলেও কোনো ফল মেলেনি বলে জানান রিজভী। এসব ঘটনার জন্য সরাসরি নির্বাচন কমিশনকে দায়ী করেন বিএনপির এই নেতা।

(ঢাকাটাইমস/১৫ডিসেম্বর/বিইউ/জেবি)  

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :