সিলেটে-১

শাহপরান থানার ওসি বদলের দাবি বিএনপি প্রার্থীর

সিলেট ব্যুরো
 | প্রকাশিত : ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৫:৩৯

নির্বাচন সামনে রেখে বিএনপির নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার ও তল্লাশির নামে অযথা হয়রানির অভিযোগ এনে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের শাহপরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আখতার হোসেনকে শিগগির বদলির দাবি জানিয়েছেন সিলেট-১ আসনে বিএনপির প্রার্থী খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির।

আজ রবিবার সকালে সিলেট নগরীর ইলেকট্রিক সাপ্লাই এলাকায় ধানের শীষ প্রতীকের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির চেয়ারপারসনের এ উপদেষ্টা বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং সরকারদলীয় লোকজন প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে আমার নির্বাচনী কাজে বাধা দিচ্ছে।  নেতাকর্মীদের নির্বিচারে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। বাসাবাড়িতে তল্লাশির নামে বিএনপির নেতাকর্মী ও তাদের স্বজনদের হয়রানি নৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।’

এ সময় তিনি শাহপরান থানার ওসি আখতার হোসেনের দ্রুত বদলির দাবি জানান।

বিএনপির প্রার্থী বলেন, ‘১০ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে সিলেটের প্রশাসন পরিকল্পিতভাবে আমার নির্বাচনী কর্মকা-ে বাধা দিচ্ছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘হয়রানি ও গ্রেপ্তার এড়াতে নেতাকর্মীরা অন্যত্র রাত কাটাতে বাধ্য হচ্ছেন। নেতাকর্মীদের বাড়িতে না পেয়ে তাদের স্বজনদের সঙ্গে চরম অসৌজন্যমূলক আচরণ করছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।’

ধানের শীষের নেতাকর্মীদের সিলেট ছেড়ে যাওয়ার হুমকি দেয়া হচ্ছে অভিযোগ করে মুক্তাদির বলেন, ‘তাদের ৩০ তারিখের পর সিলেট আসার জন্য নির্দেশ দেয়া হচ্ছে।’ এ অবস্থায় আগামী ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন কতটুকু অবাধ, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ হবে তা নিয়ে জনমনে সন্দেহের সৃষ্টি হয়েছে বলে জানান বিএনপির প্রার্থী।

নির্বাচনী আচরণবিধি সম্পর্কে মুক্তাদির আহমদ বলেন, ‘সরকারি দলের প্রার্থী ও তার সমর্থকরা প্রতিনিয়ত নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে চলেছেন। তারা রঙিন ব্যানার লাগিয়েছেন। দেয়ালে পোস্টার লাগিয়েছেন। কিন্তু, এ বিষয়ে স্থানীয় প্রশাসন কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না।’

বিভিন্ন স্থানে ধানের শীষ প্রতীকের প্রচারণায় সরকারি দলের প্রার্থীর সমর্থক ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাধা সৃষ্টি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন মুক্তাদির। বলেন, ‘কোনো কোনো স্থানে প্রচারের মাইক নিয়ে এলাকায় প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। ধানের শীষ প্রতীকের পোস্টার লাগাতে বাধা দেয়া হচ্ছে এমনকি লাগানো পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হচ্ছে।’

ধানের শীষের প্রার্থী বলেন, ‘একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন প্রত্যাশা করে সিলেটবাসী। কিন্তু নির্বাচনের প্রচারণায় যেভাবে বাধা দেয়া হচ্ছে, তাতে নির্বাচন কমিশন ঘোষিত লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড সৃষ্টি তো দূরের কথা, নির্বাচনের স্বাভাবিক পরিবেশও থাকছে না।’

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের চৌধুরী শামীম, মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন।

উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সাবেক আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট নুরুল হক, মহানগর ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আজমল বখত চৌধুরী সাদেক, জেলার সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুল গাফফার, ঐক্যফ্রন্ট নেতা অ্যাডভোকেট আনসার খান, মহানগর সহ-সভাপতি হুমায়ুন কবির শাহীন, অ্যাডভোকেট ফয়জুর রহমান জাহেদ, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম সিলেটের সভাপতি অ্যাডভোকেট এ টি এম ফয়েজ, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, জেলা সহ-সভাপতি শাহাজামাল নুরুল হুদা প্রমুখ।

(ঢাকাটাইমস/১৬ডিসেম্বর/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত