বাগেরহাটে হামলায় বিএনপির প্রার্থীসহ আহত ৭

বাগেরহাট প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৭:৩৬ | প্রকাশিত : ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৬:১১

বাগেরহাট-২ (সদর-কচুয়া) আসনে ধানের শীষের প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচারণার গাড়িবহরে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে প্রার্থী এম এ সালামসহ অন্তত সাত নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। এই হামলার জন্য আওয়ামী লীগকে দায়ী করেছে স্থানীয় বিএনপি। তবে আওয়ামী লীগ হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

প্রার্থী ছাড়া আহত অন্যরা হলেন মারুফ খান, জসিম, রাহুল, হৃদয়, মহসিন এবং গাড়িচালক রনি। এর মধ্যে মারুফকে খুলনা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে। প্রার্থীসহ বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

জেলা বিএনপির সভাপতি এম এ সালাম অভিযোগ করেন, রবিবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে চারটি মাইক্রোবাসে সদর উপজেলার যাত্রাপুর এলাকায় গণসংযোগে যাচ্ছিলাম। আমার গাড়িবহর শহরের হরিণখানা এলাকার পাঁচ রাস্তার মোড়ে পৌঁছলে আগে থেকে দাঁড়িয়ে থাকা আওয়ামী লীগের সমর্থকরা লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়। তারা আমার গাড়িসহ চারটি মাইক্রোবাসে ভাঙচুর চালায় এবং আমাদের ওপরও হামলা করে।

আওয়ামী লীগের কর্মীরা পূর্বপরিকল্পিতভাবে এই হামলা চালিয়েছে বলে ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী দাবি করেন। তিনি বলেন, ‘হামলার পর আমি ঘটনাটি পুলিশ সুপারকে অবহিত করে খুলনায় চলে এসেছি। আমি বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি, তাই আপাতত নির্বাচনী প্রচারণা বন্ধ রেখেছি।’

বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় ঢাকা টাইমসকে বলেন, দুর্বৃত্তদের ইটপাটকেল নিক্ষেপের খবর শুনে পুলিশ সেখানে যায়। কিন্তু সেখানে আমরা কোনো ক্ষতিগ্রস্ত গাড়ি বা ঐক্যফ্রন্টের কাউকে পাইনি। প্রার্থী আমাকে ফোনে ঘটনাটি জানিয়েছেন। তিনি এখনো লিখিত কোনো অভিযোগ দেননি। অভিযোগ করলে আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব।

এদিকে বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুজ্জামান টুকু সাংবাদিকদের বলেন, বিএনপি প্রার্থী এম এ সালাম আসন্ন নির্বাচনে পরাজয় বুঝতে পেরে আওয়ামী লীগের ওপর দোষ চাপিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টা করছেন। আমার দলের কোনো নেতাকর্মী ওই হামলার সঙ্গে জড়িত নয়।

(ঢাকাটাইমস/১৬ডিসেম্বর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত