বিএনপির বিজয় র‌্যালিতে হত্যা মামলার আসামিরা

ফরিদপুর প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:২৭

বিএনপির বিজয় দিবসের র‌্যালিতে অংশ নিয়েছেন বহুল আলোচিত আওয়ামী লীগ নেতা ইউসুফ আল মামুন হত্যা মামলার আসামিরা। পুলিশ ও প্রশাসনের সামনে আসামিদের ঘুরে বেড়ানোর ঘটনায় ক্ষুব্ধ নিহত ইউসুফের স্বজনরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রবিবার মহান বিজয় দিবসের সকালে শহরের কমলাপুর এলাকার ময়েজ মঞ্জিলের সামনে থেকে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের ব্যানারে একটি বিজয় র‌্যালি বের করা হয়।

এতে ফরিদপুর-৩ আসনের বিএনপি প্রার্থী চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফের নেতৃত্বে বের হওয়া ওই র‌্যালিতে প্রথম সারিতেই ছিলেন ইউসুফ আল মামুন হত্যা মামলার অন্যতম আসামি বেনজির আহমেদ তাবরিজ, এ কে কিবরিয়া স্বপন, গোলাম মোস্তফা মিরাজ, আদনান হোসেন অনুসহ বেশ কয়েকজন এজাহারভুক্ত আসামি।

র‌্যালিটি সড়ক প্রদক্ষিণ করে স্থানীয় ময়েজউদ্দীন উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে গিয়ে সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।
ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুবল চন্দ্র সাহা বলেন, আ.লীগ নেতা ইউসুফ হত্যা মামলার আসামিদের এভাবে প্রকাশ্যে বিজয় র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করায় আমরা ক্ষুব্ধ। আমাদের দলীয় নেতা ইউসুফকে প্রকাশ্যে পিটিয়ে হত্যা করার পর এখনও বিএনপি ক্যাডাররা যেভাবে শহরে ঘুরে বেড়াচ্ছে, তাদের আটক না করে প্রশাসনের এমন নির্বিকার ভূমিকায় আমরা হতাশ। আমি অবিলম্বে ওই আসামিদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই।
ফরিদপুর কোতয়ালি থানার পরিদর্শক (অপারেশন) বিপুল কুমার দে বলেন, বিজয় দিবসের সকালে আমরা সবাই গোয়ালচামটের শহীদ স্মৃতিফলকে অবস্থান করছিলাম। এমন সময় সংবাদ পেলাম হত্যা মামলার আসামিদের নিয়ে বিএনপি নেতারা র‌্যালি বের করেছেন। ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই তারা র‌্যালি শেষ করে দ্রুত সটকে পড়ে।

তিনি বলেন, ইউসুফ হত্যা মামলার আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশ তৎপর রয়েছে।
প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ফরিদপুর সদর উপজেলার নর্থ চ্যানেল ইউনিয়নের গোলডাঙ্গি চৌরাস্তার মোড় এলাকায় একটি চায়ের দোকানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কটূক্তির প্রতিবাদ করায় নর্থচ্যানেল ইউনিয়ন আ.লীগের সাংস্কৃতিকবিষয়ক সম্পাদক ইউসুফ আল মামুনকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়।
নিহত আ.লীগ নেতা ইউসুফ আল মামুনের পিতা নুরু বেপারী বলেন, আমার ছেলেকে যারা পিটিয়ে হত্যা করেছে তাদেরকে এখনো পুলিশ আটক করছে না। তারা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে, নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে। আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

(ঢাকাটাইমস/১৭ডিসেম্বর/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :