জনি-জ্যাকিদের আসরে আমির

বিনোদন ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ১০:৫১

বলিউডের ‘মিস্টার পারফেকশনিস্ট’ খ্যাত নায়ক আমির খান। প্রচলিত আছে, বছরে তিনি মাত্র একটি ছবি করেন। কিন্তু ওই একটি ছবিই সুপারহিট। এ জন্য তার ক্যারিয়ারে ফ্লপ ছবির সংখ্যা নেহাতই কম। সবচেয়ে কম রূপালি পর্দায় আসেন তিনি কিন্তু হিট হন সবচেয়ে বেশি। গত তিন দর্শক ধরে এমনটাই হয়ে আসছে। তবে তার ছবি শুধু ভারতে নয়, বিদেশের বাজারেও সমান জনপ্রিয়।

গত তিন বছরে আমির অভিনীত চারটি ছবি মুক্তি পেয়েছে চীনের প্রেক্ষাগৃহগুলোতে। সবকটি ছবিই ব্যাপক সাড়া ফেলেছে সেখানে। চীনের বক্স অফিস থেকে ছবিগুলো আয় করে নিয়েছে বিপুল পরিমাণ অর্থ। ছবিগুলো হচ্ছে ‘থ্রি ইডিয়টস’, ‘পিকে’, ‘দঙ্গল’ এবং সিক্রেট সুপারস্টার’। যার কারণে চীনের সুপারহিরো জ্যাকি চ্যান ও জেট লি’দের মতো আমির খানও সেখানে এখন ব্যাপক পরিচিত ও জনপ্রিয়।   

সেই জনপ্রিয়তার কল্যাণেই সম্প্রতি চীনের হাইনান আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে অতিথি হিসেবে ডাক পান বলিউডের মিস্টার পারফেকশনিস্ট আমির খান। গত ১৬ ডিসেম্বর পর্দা নামে এই অনুষ্ঠানের। সেখানে আমিরকে চাইনিজ হিরো জ্যাকি চ্যান ও হলিউড সুপারস্টার জনি ডেপের সঙ্গে এক মঞ্চে দেখা যায়।

দুইদিন আগের ঘটনা হলেও সোমবার রাতে সেটি প্রকাশ্যে আনেন হলিউড অভিনেতা জনি ডেপ। নিজের ইনস্টাগ্রামে তিনি আমির খান ও জ্যাকি চ্যানের সঙ্গে তোলা একটি ছবি শেয়ার করেন। তাদের সঙ্গে ছিলেন ফরাসি অভিনেত্রী জুলিয়েট বিনোশেও। এছাড়া একটি ভিডিওতে আমিরকে বক্তব্য রাখতে দেখা গেছে। মঞ্চে তখন শ্রোতার ভূমিকায় জ্যাকি। আর একটি ভিডিওতে তিনি আলোচনা করছেন জনি ডেপের সঙ্গে।

নিয়ম মতো, এ বছরও মুক্তি পেয়েছে আমির খানের একটি ছবি। ‘ঠগস অব হিন্দুস্থান’। বিজয় কৃষ্ণ আচার্য পরিচালিত এ ছবি মুক্তি পেয়েছিল গত ৮ নভেম্বর। সুপারহিট তকমা পাওয়া ‘ঠগস অব হিন্দুস্থান’ নির্মিত হয় ১৮৩৯ সালে ফিলিপ মেডোস টেইলরের লেখা ‘‌কনফেশন অফ আ ঠগ’ উপন্যাস অবলম্বনে। এই ছবির মাধ্যমে উপনিবেশিক আমলে ভারতের প্রতারকচক্র বা ঠগদের নানা দুঃসাহসিক কাণ্ড তুলে ধরা হয়েছে। যেখানে আমির খান ছাড়াও আছেন অমিতাভ বচ্চন, ক্যাটরিনা কাইফ ও ফাতিমা সানা শেখ।

বর্তমানে আমিরের মাথায় তার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় প্রজেক্ট ‘মহাভারত’। এই ছবির জন্য আপাতত নায়িকার খোঁজ করছেন তিনি। দীপিকা পাডুকোনতে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু নানা ব্যস্ততা দেখিয়ে তিনি ‘না’ করে দিয়েছেন। গুঞ্জন রয়েছে, বলিউডের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বাজেটের এই ছবির জন্য পাঁচ হাজার কোটি টাকা খরচ করতে রাজি দেশটির ধনকুবের মুকেশ আম্বানি। এখন যুঁতসই একজন নায়িকা পেলেই কাজ শুরু হবে।

ঢাকা টাইমস/১৮ ডিসেম্বর/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :