জগন্নাথে ছাত্রলীগের দুই পক্ষে দফায় দফায় সংঘর্ষ

জবি প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১০ জানুয়ারি ২০১৯, ১৮:১৮

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ছাত্রলীদের দুই পক্ষে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এই সংঘর্ষের কারণ হিসেবে দুই ধরনের তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। কেউ বলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ছবি ক্রপ করাকে কেন্দ্র করে এই ঘটনা ঘটেছে, কেউ বলছে, বাসে বসাকে কেন্দ্র করে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে।
বৃহস্পতিবার সকাল আটটা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত এই সংঘর্ষ হয়। এ সময় দুই পক্ষে অন্তত ১০ জন কর্মী গুরুতর আহত হয়। তাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, ঢাকা ন্যাশনাল হাসপাতাল, মিটফোর্ড ও স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ছাত্রলীগের একটি অংশ জানায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে জবি ছাত্রলীগের সভাপতি তরিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক শেখ জয়নুল আবেদীন রাসেলের একটি ছবি ছিল। সংগঠনের কয়েকজন কর্মী তাদের পছন্দের নেতার ছবি রেখে অন্য জনের ছবি কেটে দিয়ে ফেসবুকে আপলোড করে। এ নিয়ে পাল্টা পাল্টি কথা কাটাকাটি হয়।

বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে বৃহস্পতিবার ধানমন্ডি ৩২ এ জাতির জনকের প্রকৃতিতে ফুল দেওয়া শেষ করে ক্যাম্পাসে আসার পরই এক পক্ষ অন্য পক্ষের ওপর হামলা চালায়। এ সময় ত্রয়োদশ ব্যাচের শিক্ষার্থী ছাত্রলীগ কর্মী শাহরিয়ার শাকিল আহত হয়।

এই খবর ছড়িয়ে পরলে ক্যাম্পাসে উত্তেজনা সৃষ্টি হয় এবং পাল্টাপাল্টি ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়।
সংঘর্ষে সভাপতি পক্ষের মার্কেটিং বিভাগের সোহান, গণিত বিভাগের নাহিদ, হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের নাফিজ, আইইআর বিভাগের শাহরিয়ার শাকিল ও জিহাদ গুরুতর আহত হন।

সাধারণ সম্পাদক পক্ষে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের একেএম পারভেজ, থিয়েটার বিভাগের সাজ্জাদ ইহসান, নিয়াজ, নূরে আলম, জেনেটিক্স বিভাগের মেজবাউল আজম গুরুতর আহত হন। এছাড়া লোক প্রশাসন বিভাগের তেরোতম ব্যাচের সাধারণ শিক্ষার্থী ভৌমিক আহত হয়।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি তরিকুল ইসলাম ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘মিরপুরগামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে বসাকে কেন্দ্র করে জুনিয়র কর্মীদের মাঝে ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে। আমরা উভয় পক্ষ বসে সেটার মীমাংসা করেছি এবং উভয়ের মাঝে আর কোনো দ্বন্দ্ব নেই।’

দুপুরের দিকে দুই পক্ষের মধ্যে মীমাংসার জন্য এগিয়ে আসে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডি। তাদের হস্তক্ষেপের মধ্যে সমঝোতা হয়।
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর নূর মোহাম্মদ ঢাকা টাইমসকে বলেন, ‘দুই পক্ষের মধ্যে ভুল বুঝাবুঝির কারণে একটু সংঘর্ষ হয়। তারা ভুল বুঝতে পেরে নিজেদের মধ্যে মেটমাট করে নিয়েছে।’

(ঢাকাটাইমস/১০জানুয়ারি/আইএইচ/ডব্লিউবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত