মাশরাফি-সাকিব, দুই অধিনায়কের প্রথম লড়াই

হিমু আক্তার
| আপডেট : ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ০৯:৫৬ | প্রকাশিত : ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ০৯:৫২

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ষষ্ঠ আসরে প্রথমবারের মতো আজ মুখোমুখি হবেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের দুই অধিনায়ক মাশরাফির বিন মর্তুজা এবং সাকিব আল হাসান। বিপিএলে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্সের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন মাশরাফি। আর ঢাকা ডায়নামাইটসের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন সাকিব। তাই এই লড়াই শুধু ব্যাটে-বলেরই নয়, লড়াইটা দুই অধিনায়কের নেতৃত্বেরও বটে। মিরপুর শের-ই বাংলা স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে দুপুর ২টায়।

দিনের অপর ম্যাচে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে মাঠে নামবে রাজশাহী কিংস। একই ভেন্যুতে ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে সন্ধ্যা ৭টায়।

বরাবরের মতো এবারের বিপিএলেও দুর্দান্ত দল গড়েছে টুর্নামেন্টটির সর্বোচ্চসংখ্যক শিরোপা জেতা ঢাকা। সেই অনুযায়ী পারফর্মের ধারাবাহিক ২০১৬ সালের চ্যাম্পিয়নরা। চলতি আসরে ইতোমধ্যে আটটি ম্যাচ শেষ হয়েছে। যার মধ্যে অন্যান্য ম্যাচ লো স্কোরিং হলেও যথারীতি রানের পাহাড় গড়ে ঢাকা। নিজেদের প্রথম ম্যাচে ১৮৯ রানের পুঁজি নিয়ে রাজশাহী কিংসকে ৮৩ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে শুরু করে ঢাকা। দ্বিতীয় ম্যাচেও ব্যাটিংয়ে ঝড় তুলে সাকিবের দল। খুলনা টাইটান্সের বিপক্ষে ১৯২ রানের বড় সংগ্রহ নিয়ে ১০৫ রানের বড় জয় তুলে নেয় ঢাকা। দুই জয়ে এখন পর্যন্ত টেবিলের শীর্ষ স্থান ধরে রেখেছে তারা।

অপরদিকে, চিটাগং ভাইকিংসের কাছে হার দিয়ে চলতি আসর শুরু করে গতবারের চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্স। পরের ম্যাচে খুলনার বিপক্ষে জয়ে ফিরেন মাশরাফিরা। ছন্দ ফিরে পেয়ে তৃতীয় ম্যাচে স্মিথের কুমিল্লাকে উড়িয়ে দেয় মাশরাফির রংপুর। 

টানা দুই জয়ে স্বস্তির ঢেঁকুর রাইডার্স শিবিরে। পাশাপাশি গতবারের শেষ দেখায় ডায়নামাইটসদের হারানোর মধুর স্মৃতি তো আছেই মাশরাফিদের। তবে ছেড়ে দিতে চাইবে না সাকিবের ঢাকা ডায়নামাইটসও। কারণ গতবার ফাইনাল হারের প্রতিশোধ নিশ্চিতভাবে নিতে চাইবেন সাকিবরা। সেই সঙ্গে আছে দুই নেতার অধিনায়কত্বের চ্যালেঞ্জ। ক্রিকেটীয় শক্তি বিচারেও সমানে-সমানে দুই দল। তবে সবকিছু ছাড়িয়ে দুই অধিনায়কের বুদ্ধিদীপ্ত নেতৃত্বের লড়াই দেখতেই মুখিয়ে থাকবে সাকিব-মাশরাফি ভক্তরা। 

অপরদিকে, দিনের অন্য ম্যাচটি দুই দলের জন্যই সমান গুরুত্বপূর্ণ। কারণ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স এবং রাজশাহী কিংস দুই দলেরই পয়েন্ট সমান। এখন পর্যন্ত দুই ম্যাচ খেলে এক জয় এবং এক হার নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের পাঁচ নম্বরে আছে কুমিল্লা। সমান জয়-পরাজয়ে নেট রান রেটে পিছিয়ে ছয় নম্বরে রাজশাহী কিংস। তাই আসরে নিজেদের অবস্থান শক্ত করতে সমানভাবে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটি।

সেক্ষেত্রে ম্যাচটিতে শক্তির বিচারে এগিয়ে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। দেশি সুপারস্টাররা তো আছেনই, সেই সঙ্গে নামকরা বিদেশি কিছু খেলোয়াড়ও আছে কুমিল্লার। অন্যদিকে, প্রথম ম্যাচে হারা রাজশাহী কিংস বুধবার নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে জয়ে ফিরেছে। দলটির শক্তি মোস্তাফিজ, সৌম্য, মুমিনুল, মিরাজদের মতো স্থানীয় ক্রিকেটাররা। বিদেশি কোনো আইকন ক্রিকেটারও নেই দলটিতে। পাশাপাশি অধিনায়কত্বেও নতুন দলটির নেতৃত্ব দেওয়া মেহেদী হাসান মিরাজ। অভিজ্ঞ অধিনায়ক স্মিথের কুমিল্লার সামনাসামনি লড়াই বেশ চ্যালেঞ্জিং হবে নতুন অধিনায়ক মিরাজের। তবুুও স্থানীয় ক্রিকেটারদের নিয়ে বাজি তো ধরতেই পারেন তিনি। কারণ গত ম্যাচে তিন নম্বরে ব্যাট করতে নেমে দারুণ ব্যাটিংয়ে দলকে জিতিয়েছেন মিরাজ। 

ম্যাচ শেষে মিরাজ জানিয়েছিলেন, পরের ম্যাচেও দলের জয়ের ধারা রক্ষা করতে চাইবে তার দল। সব মিলিয়ে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স বনাম রাজশাহী কিংসের ম্যাচটি হতে পারে অধিনায়ক মিরাজের এক অন্যরকম বাজি। তামিম, আফ্রিদি আর স্মিথদের সামনে সেই বাজিতে মিরাজ কতটুকু সফল হন সেটা সময় বলে দেবে।      

(ঢাকাটাইমস/১১ জানুয়ারি/ এইচএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত