বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল ৫ ছাত্রী

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ অক্টোবর ২০১৬, ১৩:২০

ঢাকার ধামরাইয়ে নির্বাহী কর্মকর্তা ও ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপে দুই দিনে তানিয়া আক্তার, হালিমা আক্তার, সোনিয়া আক্তার, হামিদা আক্তার ও মলি আক্তার নামে পাঁচ ছাত্রী বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেয়েছে।

জানা গেছে, ধামরাইয়ের শরিফবাগ গ্রামের সাইফুল ইসলামের মেয়ে শরিফবাগ আফাজ
 উদ্দিন স্কুল ও কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী সাফি আক্তার হামিদা ও একই গ্রামের মোয়াজ্জেম হোসেনের মেয়ে একাদশ শ্রেণির ছাত্রী মলি আক্তারের বিয়ের দিন ছিল শুক্রবার।

বর পক্ষ যাওয়ার আগেই ধামরাই নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শরিফুল ইসলামের নির্দেশে ধামরাই সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন ওই দুই বিয়ে বাড়িতে পর্যায়ক্রমে হাজির
হন। দুই কনে অপ্রাপ্ত বয়স্ক প্রমাণিত হওয়ায় ও বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে বোঝানোর পর
বিয়ে না দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় তাদের পরিবার।

এর আগে ধামরাইয়ের ডেমরান গ্রামের জামাল উদ্দিনের মেয়ে শরিফবাগ আফাজ  উদ্দিন স্কুল ও কলেজের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী তানিয়া আক্তার, একই গ্রামের আব্দুল হালিমের মেয়ে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী হালিমা আক্তার ও আবুল কালামের মেয়ে নবম শ্রেণির ছাত্রী সোনিয়া আক্তারের বিয়ের দিন ছিল বৃহস্পতিবার।

বর যাওয়ার আগেই ধামরাই নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শরিফুল ইসলাম ও ধামরাই সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাহাব উদ্দিন তাদের প্রত্যেকের বাড়িতে গিয়ে বাল্যবিয়ে বন্ধ করে দেন এবং তিনটি কনের পরিবারকে ১ হাজার ৫শ টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

(ঢাকাটাইমস/১৫ অক্টোবর/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত