আগামীর তারেক রহমান কিংবা তারেক রহমান বিহীন বিএনপি?

সানাউল হক নীরু
| আপডেট : ১৪ অক্টোবর ২০১৬, ১০:৪০ | প্রকাশিত : ১৪ অক্টোবর ২০১৬, ১০:২৯
সানাউল হক নীরু

বর্তমান ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ প্রায়শই মধ্যেবর্তী নির্বাচন, এমনকি জাতীয় পার্টির নেতা হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদও কিছুদিন পূর্বেই দেখলাম সিলেট থেকে তার আগামী নির্বাচনের প্রচারণার আগাম ঘোষণা দিয়ে মাঠে নেমে পরেছেন। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও তাদের অন্যতম শরীক তথাকথিত গৃহপালিত বিরোধী দল জাতীয় পার্টি বিএনপির বেইমানদেরকে দিয়ে বানর নাচ নাচাচ্ছেন। বেইমানি, আঁতাত কিংবা আত্মসমর্পণের নির্বাচন চাই না! স্বাধীনতার ঘোষক, বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান বিএনপি পলিটিক্সের আগামী দিনের কান্ডারী, ইতিহাসের মহানায়ক শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের প্রগত উত্তরাধিকার, বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদের আগামীর রুপকার শুধুমাত্র তারেক রহমানকে চাই।

অযোগ্য, অথর্ব, বেইমান, মুনাফেক, কুলাংগারদের দরকার নাই। যারা বিএনপি নেত্রীকে তিন তাসের তুরুপ বানিয়ে নিজেদের বাণিজ্য, ভাগ্যের প্রসার ঘটাচ্ছেন; তারা এইবার সরে দাঁড়ান। বহুত তো কামাইছেন, আর খাইয়েন না, বদহজম হলেও হয়ে যেতে পারে। গণধোলাই কি জিনিস তা তো জানেন! এক হালার লেংটিও খুঁইজা পাওয়া যাইবো না। দেশের গণতন্ত্র চাওয়ার আগে বিএনপিতে নিজেদের যোগ্যতা যাচাই করুন! দলের অভ্যন্তরে গণতন্ত্র নিশ্চিত করুন। সবার অবস্থান খোলসা হওয়া দরকার। কে দল কিংবা দেশপ্রেমিক, আর কারা তৃতীয় শ্রেণির দালাল, দল এবং দেশের শত্রু তার একবার এসিড টেস্ট হওয়া দরকার!

নেত্রীর আঁচলের নীচে বসে, আর কতো কেশিয়ারের কাম করবেন, মালে মালে লাল হবেন! নেত্রী আপনাকে আল্লাহ্র দোহাই শুধুমাত্র একবার সারাদেশের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের হাতে এদেরকে ছেড়ে দেন, রাম ধোলাই কাকে বলে! কতো প্রকার ও কী কী? সবই গ্রামারসহ বুঝতে পারবেন।

বিএনপি নেত্রীকে ঘিরে থাকা চক্রটির সরকার এবং ভারতের সাথে ঐক্য করেছে, তারেক রহমান বিহীন আরো একটি আঁতাতের নির্বাচনের মাধ্যমে সরকারকে ২০০৮ সালের জামায়াতের মুজাহিদ, কামরুজ্জামানদের ফাঁদে নির্বাচনী তামাশার মাধ্যমে দেশপ্রেমিকদের দল বিএনপি এবং জনাব তারেক রহমানকে রাজনীতি থেকে চিরতরে নির্বাসিত করতে চায়, এই ঘৃণিত নরকের কিটেরা! এবারও কি নেত্রী সরকারের এজেন্ট দালাল, কিংবা বিশ্বাসঘাতকদের কাছে আত্মসমর্পণের খেলা খেলবেন নাকি নিজ সন্তানের কল্যাণে দেশ এবং দলের প্রতি সুবিচার করবেন? শেষপর্যন্ত জিয়া পরিবার কি ভুট্টু পরিবারের মতো একই নির্মম পরিণতির দিকে ধাবমান?

লেখক: সাবেক ছাত্রদল নেতা

সংবাদটি শেয়ার করুন

মতামত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত