ইরানে সার কারখানা করতে চায় বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৩ অক্টোবর ২০১৬, ১৮:৪০

দুই দেশের যৌথ বিনিয়োগে ইরানে একটি ইউরিয়া সার কারখানা স্থাপনের আগ্রহ প্রকাশ করেছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। তিনি বলেন, এ প্রকল্পে প্রয়োজনে দুই দেশের পাশাপাশি তৃতীয় অংশীদার হিসেবে বিশ্বের কোনো খ্যাতনামা কোম্পানিকে যুক্ত করা যেতে পারে। এ কারখানা স্থাপনে ইরানের চাবাহার সমুদ্র বন্দরের নিকটবর্তী শিল্প অঞ্চলে জমি বরাদ্দের বিষয়টি বিবেচনার জন্য ইরান সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন আমির হোসেন আমু।

ইরানে সফররত শিল্পমন্ত্রী সোমবার ইস্পাহান প্রদেশের গভর্নর জেনারেল রাসুল জারগাপুরের সঙ্গে বৈঠককালে এ আগ্রহের কথা জানান। গভর্নর জেনারেলের দপ্তরে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় বলে সরকারি তথ্য বিবরণীতে জানানো হয়েছে।  

বৈঠকে শিল্পমন্ত্রী ইরানের সঙ্গে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের কথা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশ এবং ইরানের জনগণের মধ্যে কৃষ্টি-সংস্কৃতি, খাদ্যাভ্যাস, ধর্মীয় মূল্যবোধসহ অনেক ক্ষেত্রেই মিল রয়েছে। ১৯৯৭ সালে ইরানে অনুষ্ঠিত ওআইসি সম্মেলন এবং ২০১২ সালে জোট নিরপেক্ষ সম্মেলন উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ইরান সফর দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে নতুন মাত্রা যোগ করেছে। তিনি দুই দেশের শিল্পায়ন ও বিনিয়োগে সরকারি ও বেসরকারি খাতের অংশীদারিত্ব বাড়িয়ে অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক সম্পর্ক জোরদারের ওপর গুরুত্ব দেন।

আমির হোসেন আমু বলেন, বাংলাদেশ সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে উদারনীতি গ্রহণ করেছে। বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য স্পেশাল ইনসেনটিভ প্রদানের পাশাপাশি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হচ্ছে। এসব অর্থনৈতিক অঞ্চলে ইরানের উদ্যোক্তারা বিনিয়োগে এগিয়ে আসতে পারে বলে তিনি মন্তব্য করেন। তিনি বাংলাদেশের সার কারখানারগুলোর জন্য অ্যামোনিয়া গ্যাস পরিবহন করতে ইরান থেকে রেলওয়ে ওয়াগন আমদানির আগ্রহ প্রকাশ করেন।

ইস্পাহানের গভর্নর জেনারেল বাংলাদেশের সঙ্গে ইরানের ঐতিহাসিক বাণিজ্য সম্পর্কের কথা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, দ্বিপাক্ষিক উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির স্বার্থে এ সম্পর্ক আরও জোরদার করতে হবে। তিনি জ্বালানি, পেট্রো-কেমিক্যাল, শিল্প, সংস্কৃতি, শিক্ষা, পরিবহন ও যোগাযোগখাতে ইরানের দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা বাংলাদেশের উন্নয়নে কাজে লাগবে বলে অভিমত প্রকাশ করেন। ইরানে দ্বিপাক্ষিক কিংবা ত্রিপাক্ষিক উদ্যোগে ইউরিয়া সার কারখানা স্থাপনের প্রস্তাবকে তিনি স্বাগত জানান। এটি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ইরানের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

(ঢাকাটাইমস/০৩অক্টোবর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত