নতুন বছরে নতুন অ্যালবাম আসবে : ন্যান্সি

জহির রায়হান
 | প্রকাশিত : ১৫ অক্টোবর ২০১৬, ০৮:৩২

জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি। মাঝের কয়েক বছর গানের বাইরের নানা কারণে বেশি আলোচনায় ছিলেন। সেই অধ্যায় সামলে এখন পরিজনদের নিয়ে ময়মনসিংহে আছেন। গানের প্রয়োজনে ঢাকায় আসেন। বলা যায় গানেই ডুবে আছেন তিনি। মুঠোফোনে সাক্ষাৎকার নিয়েছেন জহির রায়হান

কেমন আছেন, ব্যস্ত নাকি?

ভালো আছি, পুরাই ফ্রি এখন।
এখন কোথায়?

গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহে আছি।

পাশে বাচ্চার আওয়াজ শোনা যাচ্ছে?

হ্যা আমার ছোট মেয়ে নায়লা দুষ্টমি করছে। সারাক্ষণ মাতিয়ে রাখে ও। বড় মেয়ে যেমন শান্ত ছোট মেয়ে তেমন চঞ্চল।
গানের খবর কী? নতুন কোনো অ্যালবামের কাজ চলছে?

নতুন বছরে শুরুতে একটি অ্যালবাম বের হচ্ছে। নাম এখনও সিলেক্ট করা হয়নি। কিছুদিন আগে একটি সিনেমার জন্য গান করেছি।

সংসার জীবনের খবর কী?

স্বামী-সন্তান নিয়ে খুব ভালো আছি। আমার দুই মেয়ে রোদেলা ও নায়লাকে নিয়েই বেশি সময় কাটে। কাজের প্রয়োজনে প্রতি সপ্তাহেই ঢাকা আসা হয়। আর এখনতো যোগাযোগব্যবস্থা খুবই ভালো। দুই ঘন্টায় ময়মনসিংহ থেকে ঢাকা চলে যাই।
ঢাকায় এলে কোথায় থাকেন?

মিরপুরে থাকি।

বৃষ্টি নিয়ে আপনার কোনো স্মৃতি বলবেন? (১৩ অক্টোবর সাক্ষাৎকার নেয়ার সময় বৃষ্টি হচ্ছিলো)

কেন? আজ বৃষ্টি হচ্ছে তাই এমন প্রশ্ন (কণ্ঠে হাসি)। বৃষ্টি নিয়ে তো কত স্মৃতিই আছে। একবার গ্রিনরোড থেকে স্টুডিওর কাজ শেষ করে উত্তরার বাসায় ফিরবো । কিন্তু কিছুই পাচ্ছি না। হালকা বৃষ্টি পড়ছিল তখন। একটা সিএনজির অটোরিকশারও দেখা নেই। খালি একটি রিকশা সামনে দিয়ে যাচ্ছিল। জিজ্ঞেস করলাম, যাবেন। রিকশাওয়ালা জানতে চাইলো, ‘কোথায় যাবেন আপা’। বললাম, উত্তরা। রিকশাওয়ালা এবার বললো, এত দূরের পথ, রিকশাতো যেতে দিবে না। আমার মনে হলো এত রাতে আমাকে আটকাবে না। তাই আমি বললাম, যদি যেতে দেয়, তাহলে যাবেন? এবার রাজি হয়ে বললো ‘পলিথিন নেইতো,  ভিজে যাবেন যে!’ আমি বললাম, হুডটা লাগিয়ে দিন। রাত ১০টা হবে তখন, রিকশা সামনে আগাচ্ছে আর বৃষ্টিতে ভিজছি। সে এক অন্যরকম অনুভূতি। রাতে বৃষ্টির মধ্যে রিকশা চলছে। অনেকে  উৎসুক হয়ে তাকাচ্ছে। এক জায়গায় রিকশা থামলো, পুলিশ টর্চ মেরে দেখলো। চিনতে পেরে রিকশা যেতে দিলো। এক ঘন্টার মধ্যেই উত্তরার বাসায় পোঁছে গেলাম। বৃষ্টিতে ভিজতে ভিজতে বাসায় এসেছি। ভীষণ ভালো লেগেছে সেদিন। মনে হয়েছিল ছোটবেলার সেসব দিন যেন ফিরে পেয়েছি। তখন বৃষ্টি হলেই ভিজতে বের হতাম।

বৃষ্টির দিনে বিশেষ কিছু রান্না করেন?

আসলে আমি সাধারণ মানুষ। আমার স্পেসাল বলে কিছু নেই। সাধারণ লোক যেমন বৃষ্টিতে খিচুড়ি পছন্দ করে আমিও তেমনি পছন্দ করি। বৃষ্টি মানে ভুনা খিচুরি আর গরুর মাংস। আমার স্বামী আমার খিচুরি আর গরুর মাংস রান্নার খুব প্রশংসা করে।

তারকা-জীবন নিয়ে কী বলবেন?

আসলে আমি নিজেকে সেলিব্রেটি মনে করি না। সাধারণ ভাবি। সাধারণ জীবনযাপন করতেই পছন্দ করি।

ঢাকাটাইমস/১৫অক্টোবর/জেআর/এমএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত