নারায়ণগঞ্জে জেএমবির দুই সদস্যের ২০ বছরের কারাদণ্ড

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১০ অক্টোবর ২০১৬, ১৮:৩৩

নারাণগঞ্জের বন্দর থানায় র‌্যাবের দায়ের করা বিস্ফোরকদ্রব্য আইনের মামলায় নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবির দুই সদস্য মাহবুব ও সাইফুল ইসলামকে ২০ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড, ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ২য় আদালত ও বিশেষ ট্রাইবুনাল-৭ এর বিচারক মোসাম্মাৎ কামরুন নাহার সোমবার দুপুরে এই রায় দেন। দুই আসামির উপস্থিতিতে আদালত এই দণ্ডাদেশ ঘোষিত হয়।

২০০৭ সালের জানুয়ারি মাসে মামলা দায়েরের পর পুলিশ মাসখানেকের মধ্যে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। আদালতে বিচার কাজ শুরু হয় ২০০৯ সালে ১৫ ফেব্রুয়ারি।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনাকারী, অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) জাসমীন আহমেদ জানান, র‌্যাব সদর দপ্তরের গোয়েন্দা বিভাগের মেজর আতিকুর রহমানের নেতৃত্বে একটি টিম ২০০৬ সালের ২৯ ডিসেম্বর টাঙ্গাইল জেলার বায়না বাইপাস সড়কে বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র, গুলিসহ জেএমবি সদস্য সাইফুলকে গ্রেপ্তার করে। সাইফুলের দেয়া তথ্য অনুযায়ী তাকে নিয়ে র‌্যাব সদস্যরা ২০০৭ সালের ৭ জানুয়ারি রাতে নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার ফরাজীকান্দায় মাহবুবের বাড়িতে অভিযান পালিয়ে ২১টি দেশে তৈরি হ্যান্ডগ্রেনেড, পাওয়ারজেল ও তিনটি জিহাজি বই উদ্ধার করে। এই ঘটনায় র‌্যাব-১১ এর উপসহকারী পরিচালক (ডিএডি) আবদুস সালাম বাদী হয়ে বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের ৪ ও ৫ ধারায় বন্দর থানায় মাহবুব ও সাইফুল ইসলামকে আসামি করে পরদিন মামলা দায়ের করেন। বন্দর থানায় উপ পরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলাম তদন্ত শেষে দুই আসামির বিরুদ্ধে ২০০৭ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেন। আদালতে বিচারকাজ শুরু হয় ২০০৯ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি।

আসামি সাইফুল ইসলাম বন্দর উপজেলার ফরাজীকান্দার সরদারবাড়ীর মৃত কামালউদ্দিনের ছেলে। অপর আসামি মাহাবুব ফরাজীকান্দার মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে। সাইফুল কোনো আইনজীবী নিয়োগ না দিয়ে নিজের মামলা নিজেই পরিচালনা করেন। অপর আসামি মাহবুবের পক্ষে বিভিন্ন শুনানিতে বিভিন্ন আইনজীবী অংশ নিলেও রায় ঘোষণার সময় কেউ ছিলেন না। রাষ্ট্রপক্ষের ২৮ জনের মধ্যে ১৬ জন আদালতে সাক্ষ্য দেন।

এর আগে সকালে কড়া পুলিশ প্রহরায় কাশিমপুর কারাগার থেকে জেএমবি সদস্য দুই আসামিকে আদালতে আনা হয়। পরে তাদের আবার কাশিমপুর কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

(ঢাকাটাইমস/১০অক্টোবর/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আদালত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত