অবৈধ দু্ই টেলিভিশন সম্প্রচার বন্ধ: আটক চার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০১ অক্টোবর ২০১৬, ২০:০৭ | প্রকাশিত : ০১ অক্টোবর ২০১৬, ১৩:০০

টেলিভিশন সম্প্রচারের জন্য সরকারের কাছ থেকে লাইসেন্স নেয়ার বাধ্যবাধ্যকতা থাকলেও এর ধার ধারেনি ‘এইচ বাংলা’ ও ‘নেহা টেলিভিশন’ নামে দুটি প্রতিষ্ঠান। সিঙ্গাপুর থেকে আপলোড করা দুটি টেলিভিশন বাংলাদেশে প্রচার চালিয়ে আসছিল গত তিন মাস ধরেই। 

উত্তর বাড্ডায় সুবাস্তু নজরভ্যালির উল্টোপাশে একটি ভবনের দ্বিতীয় তলা ভাড়া নিয়ে বাংলাদেশের অফিস খুলেছিল টেলিভিশন দুটি। বিনোদনমূলক আধেয় প্রচার করে আসা টেলিভিশন দুটিতে বাংলাদেশি সংস্কৃতি ও মূল্যবোধবিরোধী নানা অনুষ্ঠান প্রচার হতো বলে জানিয়েছে র‌্যাব। পাশাপাশি বিজ্ঞাপনও প্রচার হতো নানা ধরনের।  

শনিবার এইচ বাংলা ও নেহা টেলিভিশনের চার জনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। এরা হলেন- শামীম আহমেদ, মো. ইব্রাহীম হোসেন, বোরহান উদ্দিন ও রাশেদ স্বপন। বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে ৩২/৫/এ উত্তর বাড্ডার পলাশ টাওয়ারের দ্বিতীয় তলায় টেলিভিশন দুইটির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যমা শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান।   

তবে প্রতিষ্ঠান দুটির মালিক কে সে তথ্য জানায়নি র‌্যাব। কৌশলগত কারণে এই নাম প্রকাশ করা হয়নি বলে জানিয়েছে বাহিনীটি। 
মুফতি মাহমুদ খান বলেন, ‘গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে আমরা টেলিভিশন দুইটির কার্যালয়ে অভিযান চালাই। এই টেলিশিভন চ্যানেলগুলো এই কার্যালয় থেকে বিভিন্ন ধরনের বাংলা ছায়াছবি, নাটক, বিজ্ঞাপন ও অশীল ছবি সম্প্রচার করে আসছিল।’

র‌্যাব কর্মকর্তা বলেন,  দেশের ৩৪টি জেলায় টেলিভিশন দুটির সম্প্রচার চলছিল। এদের সঙ্গে বেশ কয়েকজন কেবল অপারেটর জড়িত বলেও জানান তিনি। 
র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক বলেন, শামীম আহমেদ এখানে সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেলন। আর রাশেদ স্বপন এখানে মার্কেটিং ম্যানেজার হিসেবে কাজ করতেন। তিনি এর আগে একটি বেসরকারি টেলিভিশন আরটিভিতে ক্রু পদে কাজ করতেন। আর ইব্রাহীম এর আগে পাইরেসির অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়ে জেলে গিয়েছিলেন।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা আরো বলেন, এখানে বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান তৈরি করে তা সিঙ্গাপুরে পাঠানো হতো। পরে সিঙ্গাপুর থেকে তা সম্প্রচারের ব্যবস্থা করত। 

(ঢাকাটাইমস/০১অক্টোবর/এএ/ডব্লিউবি)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

গণমাধ্যম বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত