প্রধানমন্ত্রীর ফর্মুলায় সংকটের সমাধান দেখছেন আসিফ নজরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৫ অক্টোবর ২০১৬, ২০:১১ | প্রকাশিত : ১৫ অক্টোবর ২০১৬, ১৯:৪৮

তত্ত্বাবধায়ক সরকার না হলেও নির্বাচন নিয়ে সংকট সমাধানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তিন বছর আগে দেয়া ফর্মুলা আগামী নির্বাচনে কার্যকর হতে পারে বলে মনে করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক আসিফ নজরুল। শনিবার রাজধানীতে এক গোলটেবিল আলোচনায় বিএনপিপন্থি এই বুদ্ধিজীবী এ কথা বলেন।

কাজী রকিব উদ্দীন আহমেদের নেতৃত্বে নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী বছরের শুরুতেই। তার আগেই গঠন করা হবে নতুন নির্বাচন কমিশন। এই কমিশন গঠন নিয়ে নাগরিক ভাবনা শীর্ষক এই আলোচনার আয়োজন করে বেসরকারি সংগঠন সুশাসনের জন্য নাগরিক।

নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে আলোচনার আয়োজন করা হলেও এতে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন, বিএনপির বর্জন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার, আগামী জাতীয় নির্বাচন নিয়ে নানা কথা বলেন আলোচকরা।

বিএনপির প্রতি সহানুভূতিশীল হিসেবে পরিচিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক আসিফ নজরুল আগামী নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে ২০১৩ সালের শেষ দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফর্মুলা গ্রহণ করা যেতে পারে বলে মনে করেন। তিনি বলেন, ‘ত্ত্ত্বাবধায়ক সরকার না হলেও প্রধানমন্ত্রী সবাইকে নিয়ে দলীয় সরকার গঠনের প্রস্তাব দিয়েছেন। সেটা বাস্তবায়ন করা যায়।’

আসিফ নজরুলের এই প্রস্তাবকে কীভাবে দেখছেন-জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মাহবুবুর রহমান ঢাকাটাইমসকে বলেন ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘আসিফ নজরুল যুক্তিযুক্ত কথা বলেছেন। বাংলাদেশে এখন গণতন্ত্র নেই। এটাকে ফিরিয়ে আনতে হলে সব দলের অংশগ্রহণে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন জরুরি।’

বিএনপি নেতা বলেন, ‘এ ক্ষেত্রে শক্তিশালী ভূমিকা পালন করবে শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন। আর সে সরকার যদি নির্দলীয় হয় তাহলে ওই কমিশনের ওপর তারা কোনো প্রভাব বিস্তার করবে না। আর যদি সেটা না হয় এবং ওই সরকারে সব দলের অংশগ্রহণ থাকে তাহলেও একটি সমাধান হতে পারে।’

২০১৩ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমন প্রস্তাব দিলেও বিএনপি তখন তাহলে কেন মেনে নেয়নি- জানতে চাইলে মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘‘পেছনের কথা বলে লাভ নেই, ভুল ভাল যা হয়েছে হয়েছে, আমাদেরকে এখন সামনের দিকে তাকাতে হবে।’

আওয়ামী লীগ সরকার তার আগের মেয়াদে সংবিধান সংশোধন করে নির্বাচিত সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ব্যবস্থা করে। তবে বিএনপি এই সংশোধনী মেনে না নিয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে নির্বাচন বর্জন করে।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপিকে আনতে ২০১৩ সালের শেষের দিকে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকার গঠনের প্রস্তাব দেন। বিএনপিকে সংসদে সদস্যপদের আনুপাতিক হারে ওই সরকারে প্রতিনিধিত্ব দেয়ারও প্রস্তাব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এমনকি ওই সরকারে বিএনপি প্রধানমন্ত্রী ছাড়া যে পদ চাইবে সেটিই দেয়ার কথা বলেন তিনি। তবে বিএনপি এই প্রস্তাব তখন ফিরিয়ে দিয়ে নির্বাচন বানচালের আন্দোলনে নামে।

ওই আন্দোলনে ব্যর্থতা এবং সরকার পতনের চূড়ান্ত আন্দোলনে নেমে খালি হাতে ফেরা বিএনপি আগামী সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়ার নিশ্চয়তা দেয়ার কথা বলছে।

ঢাকাটাইমস/১৫অক্টোবর/জেআর/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত