ইডেনের সাবেক উপাধ্যক্ষের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১১ অক্টোবর ২০১৬, ২০:১৪ | প্রকাশিত : ১১ অক্টোবর ২০১৬, ১৬:৫১

রাজধানীর ইডেন মহিলা কলেজের সাবেক উপাধ্যক্ষ আলী হোসেন মালিকের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। রাজধানীর বনানীর ডিওএসএইচ এলাকার একটি বাসা থেকে মঙ্গলবার তার লাশটি হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ডেভেলপার কোম্পানি সৈয়দ গ্রুপের কর্মচারী সেলিমকে আটক করেছে পুলিশ। ওই প্রতিষ্ঠানের কর্মী সাইফুল ও তার ভাই ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছেন।

ভাষানটেক থানার উপপরিদর্শক আসিফ ইকবাল ঢাকাটাইমসকে বলেন, মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে বনানীর ডিওএসএইচের ৫৩/এ নম্বর বাড়ির চতুর্থ তলার সৈয়দ গ্রুপের অফিস থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের জখমের চিহ্ন রয়েছে। এছাড়াও তার হাত-পা বাঁধা এবং মুখমণ্ডল কসটেপ দিয়ে পেঁচানো ছিল। তার স্ত্রী জোসনা মালিক এসে তার লাশ শনাক্ত করেন।

নিহত আলী হোসেন মালিকের পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান, সাত-আট বছর আগে ইডেন কলেজের শিক্ষকতা থেকে অবসর নেন আলী হোসেন। এরপর গৃহনির্মাণ প্রতিষ্ঠান সৈয়দ গ্রুপের ব্যবস্থাপক হিসেবে যোগ দেন। ওই প্রতিষ্ঠানটি বনানীর একটি প্লটে বহুতল ভবন নির্মাণ করছিল। বেশি রাত হলে আলী হোসেন নির্মাণাধীন ভবনের তৃতীয় তলায় অফিসে নিজের কক্ষেই থেকে যেতেন। সোমবার দিবাগত রাতে তিনি মিরপুর ১০ নম্বরের নিজ বাড়িতে ফিরে যাননি। আজ সকালে বনানীর নির্মাণাধীন ভবনের তত্ত্বাবধায়কেরা অফিসের কক্ষে আলী হোসেনের লাশ দেখতে পেয়ে পরিবারকে জানান।

আলী হোসেনের এক ছেলে। তিনি রাজধানীর মিরপুরের ১০ নম্বর সেকশনের এ ব্লকের ৮ নম্বর রোডের, ৭ নম্বর বাড়িতে থাকেন।

নিহত মো. আলী হোসেন চুয়াডাঙ্গার সদর থানার রেলপাড় গ্রামের মৃত হাবিবুর রহমান মালিকের ছেলে।

ভাষানটেক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম ঢাকাটাইমসকে বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে আলী হোসেনকে হত্যা করা হয়েছে। এর সঙ্গে ওই ভবনের লোকজন জড়িত রয়েছেন। পালিয়ে গেলেও তাদের পরিচয় পাওয়া গেছে। তবে সেলিম মিয়া নামে ভবনের একজন তত্ত্বাবধায়ককে আটক করা হয়েছে। এ ছাড়া আরও কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

(ঢাকাটাইমস/১১অক্টোবর/এএ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত