আসছেন শেখ রেহানাও

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৩ অক্টোবর ২০১৬, ১০:৫৪ | প্রকাশিত : ১৩ অক্টোবর ২০১৬, ০৮:৪৮

তিনি দেশের স্থপতির মেয়ে। কিন্তু সব সময়ই দৃশ্যপটের বাইরে থাকতে পছন্দ করেন। নেপথ্যে থেকে বড় বোনের কাজে সাহায্য করেন নানাভাবে। রাজনৈতিক কিংবা সরকারি কর্মসূচিতে প্রত্যক্ষভাবে নিজেকে সেভাবে জড়ান না, তবে প্রয়োজনের সময় দল ও নেতাকর্মীদের পরামর্শ দিয়ে থাকেন সব সময়ই।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট মেয়ে শেখ রেহানা প্রথমবারের মতো এবার দলের জাতীয় সম্মেলনে আসছেন কাউন্সিলর হয়ে। এর মধ্য দিয়ে আসতে পারেন দলের কোনো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যখন সপরিবারে নিহত হন, তখন শেখ রেহানা বড় বোন শেখ হাসিনার সঙ্গে জার্মানিতে ছিলেন। পরে তিনি যুক্তরাজ্যে ‘রাজনৈতিক আশ্রয়' নিয়ে সেখানেই থিতু হন। মাঝে মাঝে দেশে এলেও কখনো রাজনীতিতে সক্রিয়ভাবে জড়াননি তিনি।

আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, দলীয় রাজনীতিতে তেমন সক্রিয় না থাকলেও শেখ রেহানা সব সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে থাকেন ছায়ার মতো। দল ও সরকার পরিচালনায় বড় বোনকে সব সময় উৎসাহ দেন তিনি। আর বড় বোনও গুরুত্বপূর্ণ সময়ে পরামর্শের জন্য ছোট বোনের শরণ নেন বলে জানিয়েছে দলের নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র।

সূত্র জানায়, এক-এগারোর পটপরিবর্তনের পর শেখ হাসিনা যখন গ্রেপ্তার হন, ওই সময় বড় বোনের পক্ষে নেপথ্যে দলের নেতৃত্বে হাল ধরেন শেখ রেহানা। নানা প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্যে দলকে ঐক্যবদ্ধ রাখেন তিনি। ২০০৮ সালের জাতীয় নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে আওয়ামী লীগ যখন সরকার গঠন করে, তখনো তিনি নিজেকে দৃশ্যপটের বাইরে রেখে বড় বোনকে সহায়তা করে যান।

দলের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, দল ও সরকারের কোনো পদে না থেকেও দলের জন্য প্রতিনিয়তই কাজ করেন বঙ্গবন্ধুর ছোট মেয়ে শেখ রেহানা। বিশেষ করে দলের আন্তর্জাতিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে বেশ বড় একটা ভূমিকা রয়েছে তার। তা ছাড়া দেশে-বিদেশে নেতাকর্মীদের সঙ্গে তার যোগাযোগ শেখ হাসিনাকে অনেকটা নির্ভার রাখে।

আওয়ামী লীগের একজন নেতা ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘ছোট আপা (শেখ রেহানা) কমিটিতে না থাকলেও দলের সঙ্গে আছেন ছায়ার মতো। তিনি যে কত বড় মাপের মানুষ সেটা তার সাথে কথা না বললে বোঝা যাবে না। যখন তার সাথে দেখা হয় তিনি আমাদের খোঁজখবর নেন। শুধু দেশের নয়, লন্ডনে যারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক আছেন, তাদের নিয়মিত খোঁজ-খবর রাখেন তিনি।’

দলের জন্য যার এমন অবদান, স্বাভাবিকভাবেই তাকে নিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে কৌতূহল অনেক। শেখ রেহানা কি আসবেন দলের নেতৃত্বে?

জানা গেছে, আসন্ন জাতীয় সম্মেলনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণের কাউন্সিলর হিসেবে যোগ দেবেন শেখ রেহানা। আর দলের নেতাকর্মীরা চান, শুধু কাউন্সিলর হিসেবে যোগদান নয়, এবার দলের গুরুত্বপূর্ণ কোনো পদে আসুন তিনি।

আওয়ামী লীগের একজন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘দলীয় নেতাকর্মীরা চান বঙ্গবন্ধু-কন্যা শেখ রেহানাও দলের কোনো দায়িত্ব নিন। কারণ তিনি দলের নেতৃত্বে না থেকেও কাজ করে চলেছেন, নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগোযোগ রক্ষা করছেন সব সময়। নেতাকর্মীরাও তাকে দলে দেখতে চান।’

নাম প্রকাশ না করার শর্তে আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর একজন প্রভাবশালী সদস্য ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘রেহানা আপা দলের কার‌্যনির্বাহী কমিটির অন্তর্ভুক্ত হবেন কি না সেটা এখনো জানি না। তবে তিনি যদি দলের কমিটিতে আসেন তা আমাদের জন্য সৌভাগ্যের বিষয় হবে।’

(ঢাকাটাইমস/১৩অক্টোবর/টিএ/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন ফিচার বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত