ঢাকায় দিনব্যাপী উইকিপিডিয়া এডিট-আ-থন অনুষ্ঠিত

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৫ ডিসেম্বর ২০১৬, ১৫:০৫

ঢাকায় দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হয়েছে উইকিপিডিয়া কারিগরি সম্পাদনা (এডিট-আ-থন) আয়োজন। উইকিমিডিয়া বাংলাদেশের উদ্যোগে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের সহায়তায় জাদুঘরের মিলনায়তনে ভালো নিবন্ধ তৈরি বিষয়ে কারিগরি সম্পাদনা অনুষ্ঠিত হয়। 

এতে মহান মুক্তিযুদ্ধের সাত বীরশ্রেষ্ঠর নিবন্ধের মানন্নোয়নের পাশাপাশি বিভিন্ন প্রখ্যাত ব্যক্তি, বাংলাদেশের ঐতিহ্যের নানা বিষয় ভিত্তিক নিবন্ধ নিয়ে কাজ করেন সক্রিয় উইকিপিডিয়া সম্পাদকেরা। 

এ আয়োজনে বিভিন্ন জেলার প্রায় ৩০ জন সক্রিয় উইকিপিডিয়া সম্পাদক যোগ দেন। নিবন্ধের মানোন্নয়নের পাশাপাশি নানা ধরনের ছবি উন্মুক্ত ছবির ভান্ডার উইকিমিডিয়া কমন্সে যোগ করা হয়। 

এ বিষয়ে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক ফয়জুল লতিফ চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর ইতিহাস ও ঐতিহ্য সংশ্লিষ্ট নানা কর্মকান্ডে জড়িত হয়। বাংলা উইকিপিডিয়ার এডিট-আ-থন-এ পরোক্ষে হলেও অংশ করে জাতীয় জাদুঘর একটি মহৎ দায়িত্ব পালন করেছে। বাংলা উইকিপিডিয়ার  প্রসারে ও উন্নয়নে যে কোনও প্রকল্পে ভবিষ্যতেও জাতীয় জাদুঘর সহযোগিতা করবে। 

দিনব্যাপী এ আয়োজনে অংশ নেন উইকিমিডিয়া বাংলাদেশের সভাপতি আলী হায়দার খান তন্ময়, কোষাধ্যক্ষ তানভির মোর্শেদ, নির্বাহী সদস্য শাবাব মুস্তাফা, মাসুম আল হাসান রকি, নির্বাহী সদস্য ও বাংলা উইকিপিডিয়ার প্রশাসক নুরুন্নবী চৌধুরী হাছিব, সক্রিয় উইকিপিডিয়ান মঈনুল ইসলাম, আফিফা আফরিন, ইব্রাহিম হোসেন মিরাজ, আর কে হান্নান, প্রত্যয় ঘোষসহ অনেকে। 

আয়োজন সম্পর্কে উইকিমিডিয়া বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক নাহিদ সুলতান বলেন, বাংলা উইকিপিডিয়ায় বর্তমানে যেসব নিবন্ধ আছে সেগুলোকে আরো মানন্নোয়নের মাধ্যমে ভালো করার জন্য আমাদের সক্রিয় ও অভিজ্ঞ উইকিপিডিয়ানদের অংশগ্রহণে এ এডিট-আ-থন অনুষ্ঠিত হয়েছে। একই ভাবে ভবিষ্যতে আরো এডিট-আ-থন অনুষ্ঠিত হবে বলেও জানান তিনি। 

উল্লেখ্য, বর্তমানে বাংলা উইকিপিডিয়ায় নিবন্ধের সংখ্যা ৪৬ হাজারের বেশি। এর মধ্যে নিয়মিত ভাবে নতুন নিবন্ধ যুক্ত করার পাশাপাশি যেসব নিবন্ধ ইতিমধ্যে যুক্ত আছে সেগুলোকে আরো মানন্নোয়ন করতে উইকিমিডিয়া বাংলাদেশের উদ্যোগে নিয়মিত ভাবে এডিট-আ-থনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ আয়োজনে আগ্রহী যে কেউ যোগ দিতে পারবেন বলে জানা গেছে। 

(ঢাকাটাইমস/২৫ডিসেম্বর/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :