নারায়ণগঞ্জে আসমা হত্যায় তিনজনের ফাঁসি

প্রকাশ | ২৮ মে ২০১৮, ১৫:১৩

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে পোশাক শ্রমিক আসমাকে অপহরণ করে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় তিনজনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের একটি আদালত। একইসঙ্গে এ মামলায় অপর চার আসামিকে খালাস দেওয়া হয়েছে। ঘটনার দীর্ঘ দশ বছর পর এ মামলার রায় দিলো আদালত।

সোমবার দুপুর ১২টায় নারায়ণগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক মো. জুয়েল রানা এ রায় ঘোষণা করেন। মামলায় অভিযোগপত্রে মোট ২৪ জন সাক্ষীর মধ্যে ১৪ জন সাক্ষীর জবানবন্দি, জেরা যুক্তিতর্কসহ যাবতীয় বিচার প্রক্রিয়া শেষে আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- বন্দরের নূর উদ্দিনের ছেলে নাসির উদ্দিন বিটল (৪০), অকু মিয়ার ছেলে ছফুন (৩৪), মৃত আব্দুস সালামের ছেলে খোকন মিয়া (৩২)।

অন্যদিকে খালাসপ্রাপ্তরা হলেন- আলমাস ব্যাপারির ছেলে ছালেহ আহমেদ ছালাত (৩৮), মৃত মোমিন আলী মুন্সির ছেলে হাসান কবির মেম্বার (৫৪), আবুল কাশেমের ছেলে আব্দুল আজিজ ওরফে দাড়িওয়ালা আজিজ (৩৯), সুজন মিয়ার ছেলে মোঃ মিজান (৩৫)। এদের সবাই কারাগারে থাকলেও হাসান কবির মেম্বার পলাতক।

আদালতের স্পেশাল পিপি অ্যাডভোকেট রাকিবউদ্দিন আহমেদ রকিব জানান, আসামিদের জবানবন্দি, সাক্ষীদের দীর্ঘ জেরা শেষে আদালত তিনজনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন এবং বাকি চারজনকে খালাস দিয়েছেন। 

তিনি জানান, ২০০৮ সালের ১২ মার্চ রাতে মামলার বাদী রাজা মিয়ার মেয়ে পোশাক শ্রমিক আসমা আক্তার তার ডিউটি শেষ করে বাড়ি ফেরার পথে বন্দরের কুশিয়ারা ভদ্রাসন শরবতের বাড়ির সামনে থেকে আসামিরা আসমাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে পালাক্রমে ধর্ষণ করে তাকে হত্যার পর লাশ মাটিচাপা দিয়ে রাখে। এ ঘটনায় আসামি খোকন ২০০৮ সালের ১১ জুন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় ও আসামিদের নাম উল্লেখ করে।

(ঢাকাটাইমস/২৮মে/প্রতিনিধি/ডিএম)