বিস্ফোরক দ্রব্যসহ জেএমবি তিন সদস্য গ্রেপ্তার

বগুড়া প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৪ আগস্ট ২০১৮, ১৬:২২

কুড়িগ্রাম থেকে বিদেশি পিস্তুল ও বিস্ফোরক দ্রব্যসহ পুরাতন জেএমবির সদস্য ও জেলা ইছাবার প্রধানসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তাররা হলেন- কুড়িগ্রাম জেলার ঢুসমারা উপজেলার দিয়ারচর কৌনাইছাপাড়া গ্রামের জেলার ইছাবার প্রধান তোফাজ্জল হোসেন ওরফে তোতা মিয়া, একই এলাকার জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম এবং একই এলাকার আব্দুল হামিদ।

শুক্রবার গভীর রাতে কুড়িগ্রাম জেলার ঢুসমারা উপজেলার দিয়ারচর এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

শনিবার সকালে বগুড়া পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ২৯ জুলাই রংপুর জেলার গংগাচরা উপজেলা থেকে গ্রেপ্তার চার জেএমবি সদস্যের স্বীকারোক্তি জবানবন্দিতে প্রাপ্ত তথ্যে বগুড়া জেলা গোয়েন্দা শাখা ও পুলিশ হেড কোয়াটারইনটেলিজেন্স শাখা যৌথভাবে কুড়িগ্রাম জেলার ঢুসমারা উপজেলার দিয়ারচর এলাকায় শুক্রবার রাত দেড়টায় অভিযান চালায়।

এসময় একটি বিদেশি ৭.৬৫ পিস্তুল, চার রাউন্ড গুলি, দুইটি ম্যাগজিন, এক বোতলে সালফিউরিক এসিড, দুটি কৌটায় এক কেজি বিস্ফোরক পাউডারসহ পুরাতন জেএমবির সদস্য ও জেলা ইছাবার প্রধান তোফাজ্জল হোসেন ওরফে তোতা মিয়াসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এসময় রংপুর জেলার পীরগঞ্জ থানা দাওয়াহ শাখার প্রধান ফুয়াদসহ পাঁচজন জেএমবি সদস্য পালিয়ে গেছে।

পলাতকরা হলেন- দাওয়াহ প্রধান ফুয়াদ ওরফে নিয়াজ, ইছাবার সদস্য  মো. মেরাজ, ইছাবার সদস্য তোহা ওরফে খয়রুল, ইছাবার সদস্য কামরুল ও ইছাবার সদস্য আমিন। পলাতকদের গ্রেপ্তারের পুলিশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

এসপি আরো জানান, গ্রেপ্তারদের সংশ্লিষ্ট থানায় হাজির করে বগুড়া গোয়েন্দা পুলিশের এসআই ফিরোজ বাদী হয়ে একটি মামলা করবে। গ্রেপ্তারদের আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলাম, আব্দুল জলিল, মকবুল হোসেন, সনাতন চক্রবত্তী, গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে এ আলম সিদ্দিকীসহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা।

(ঢাকাটাইমস/৪আগস্ট/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :