ফতুল্লায় দুইগ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১, অগ্নিসংযোগ

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১০ আগস্ট ২০১৮, ১৭:৪৩

নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে টেটার আঘাতে জয়নাল আবেদীন (৬০) নামে এক ব্যক্তি মারা গেছেন। তার মৃত্যুতে এলাকায় ব্যাপক ভাঙচুরসহ বাড়িতে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার ভোরে টেটাবিদ্ধ জয়নাল আবেদীন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। 

এদিকে রহিম হাজী গ্রুপের সদস্য জয়নাল আবেদীন মৃত্যুর সংবাদে রহিম হাজীর লোকজন সামেদ আলী হাজীসহ তাদের লোকদের বাড়িঘর ভাঙচুরসহ  তাণ্ডব চালিয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে প্রভাবশালী ছামেদ আলী হাজী ও রহিম হাজী গ্রুপের মধ্যে টেটাবল্লম নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে জয়নাল আবেদীনসহ উভয় গ্রুপের ৮-১০ জন টেটাঁবিদ্ধ হয়।

এর আগে  দুই গ্রুপকে এলাকায় শান্ত রাখতে ফতুল্লা থানা পুলিশ মিমাংসা করে দিয়েছিল। এতে করে পুলিশের সামনে রহিম হাজী ও সামেদ আলী মুচলেকা দেয়।

নিহত জয়নাল আবেদীন কেরানীগঞ্জ থানার উত্তর আকবরনগর এলাকার জয়নাল আবেদীনের ছেলে। তিনি রহিম হাজী গ্রুপের সদস্য।

এলাকাবাসী জানায়, ফতুল্লার বক্তাবলীর আকবরনগর এলাকায় প্রভাব বিস্তার নিয়ে প্রাবশালী ছামেদ আলী হাজী ও রহিম হাজী গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। তারা একে অপরকে ঘায়েল করতে নানা ভাবে কূটকৌশল চালিয়ে আসছিল।

তাদের মধ্যে বেশ কয়েক দফায় দফায় টেটাঁবল্লম, নারী-পুরুষ নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছিল। তারা একে অপরের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরও করেছে।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদের  জানান, ফতুল্লার আকবরনগরে প্রভাব বিস্তার নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় উভয় গ্রুপের ৮-১০ জন টেটাঁবিদ্ধ হয়। আর টেটাবিদ্ধ জয়নাল নামের একজন মারা যায়।

জয়নালের মৃত্যুর সংবাদে সামেদ আলী হাজীসহ তার লোকজনের বাড়িতে ব্যাপক তান্ডব চালিয়ে ভাঙচুর লুটপাট করাসহ বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে। আর এলাকার পরিস্থিতি শান্ত করে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। আর নিহতের লাশ ঢাকা মেডিকেল হতে আনার পর পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ নেয়া হবে। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

(ঢাকাটাইমস/১০আগস্ট/প্রতিনিধি/ওআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :