দুই সপ্তাহের ‘মামলা বন্যায়’ আসামি তিন লাখ: বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:২৬
ফাইল ছবি

চলতি মাসের ১৪ দিনে সারাদেশে বিএনপির বিরুদ্ধে নতুন করে তিন হাজারের বিরুদ্ধে মামলা দেয়ার অভিযোগ এসেছে দলের পক্ষ থেকে। দাবি করা হয়েছে এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে তিন লাখেরও বেশি নেতাকর্মীকে। আর এই বিষয়টিকে ‘মামলা বন্যা’ বলেছে দলটি।

শুক্রবার সকালে নয়াপল্টনের দলীয় কার্যালয়ে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে এই জানান বিএনপির মুখপাত্র রুহুল কবির রিজভী।

‘পুলিশ মামলা হামলার বন্যা বইয়ে দিয়েছে’ মন্তব্য করে রিজভী বলেন, ‘বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে প্রাপ্ত তথ্য মতে গত ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ থেকে এ পর্যন্ত ঢাকাসহ সারাদেশে গায়েবি মামলা করা হয়েছে তিন হাজারের অধিক। আসামি করা হয়েছে নামে-বেনামে প্রায় তিন লাখ নেতাকর্মীকে। গ্রেপ্তার করা হয়েছে তিন হাজার ৫০০ এর অধিক নেতাকর্মীকে।’

গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৯০ জনের অধিক নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করার সংবাদ পাওয়ার কথাও জানান রিজভী।

পোলিও টিকা খাওয়াতে সরকারের স্লোগানের উল্লেখ করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এই মামলার ঘটনায় নিজের মতো করে একটি স্লোগান তৈরি করেন। বলেন, “এখন সরকার এই শ্লোগানটি ভিন্ন অর্থে প্রয়োগ করছে বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর। অর্থাৎ ‘মামলা-হামলায় বাদ যাবে না একটিও বিএনপি নেতাকর্মী’।”

‘দেশে এখন মানুষ নিজের ছায়াকেও ভয় পাচ্ছে। মনে হয়-দেশের প্রতিটি মানুষকে কেউ না কেউ অনুসরণ করছে, গতিবিধি লক্ষ্য করা হচ্ছে।’

‘এমনিতে গুম, খুন ও ক্রসফায়ারের ক্রমাগত বিস্তৃতি ঘটছে, তার ওপর রাজধানীসহ দেশের আনাচে-কানাচে এমন কোনো বিএনপিসহ বিরোধীদলের মানুষ বা সমর্থক নেই যাদের নামে মিথ্যা মামলা দেয়া হয়নি। পাশাপাশি বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মী সমর্থকদের ছাঁকনি দিয়ে ধরা হচ্ছে।’

‘পুলিশের আগ্রাসী অভিযানে দেশের মানুষের জানমাল নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়ছে অভিযোগ করে রিজভী বলেন, ‘এদেশে বিদেশি মিশনের কূটনীতিকদেরও নিরাপত্তা নেই। বাংলাদেশে মার্কিন রাষ্ট্রদূতের উপরও হামলা হয়েছে। কোথাও আওয়াজ শুনলেই সেখানে সরকারি হামলা ধেয়ে আসছে।’

প্রধানমন্ত্রীকে কুর্নিশ না করলেই কারাগার

পরোয়ানা, গ্রেপ্তার, হাজতবাস, নিষ্ঠুর বিচার এখন মানুষের নিয়তি হয়ে গেছে বলে মনে করেন রিজভী। বলেন, ‘শুধু বিরোধীদল নয়, গণতন্ত্রপ্রেমী মানুষকে এই সরকার অপরাধী বানাচ্ছে।’

‘সরকারের এই অপরাধের তালিকায় আছেন কোমলমতি স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী, অধ্যাপক, শিল্পী, আলোকচিত্রী, সাংবাদিক, অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট, যাত্রী কল্যাণের মহাসচিব মোজাম্মেল হক এর ন্যায় নিরীহ নাগরিক, শিশু, অশীতিপর বৃদ্ধসহ নানা শ্রেণি পেশার মানুষ।’

‘বাদ যায়নি কবরে শায়িত লাশ, প্যারালাইজড রোগী, বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশি, পবিত্র হজব্রত পালনরত ব্যক্তিও। সরকার প্রধানের মনে ত্রাস ও ভয়ের সৃষ্টি হওয়ায় দেশজুড়ে চলছে সরকারি জুলুমের আতিশয্য।’

বিএনপি নেতা বলেন, ‘অবৈধ সরকারের প্রধানমন্ত্রীকে কুর্নিশ করতে হবে, কোন সমালোচনা চলবে না, এর ব্যত্যয় হলেই তার ঠাঁই হবে কারাগারে। এই তুঘলকি শাসন এখন চলছে বাংলাদেশে।’ 

মতিঝিল থানায় তিনি নিজে ছাড়াও বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান আমিনুল হক, আইন বিষয়ক সম্পাদক সানাউল্লাহ মিয়া এবং পল্টন থানার একটি মামলায় চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালামসহ অসংখ্য নেতার নামে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলা হয়েছে বলেও জানান রিজভী। দলের পক্ষ থেকে এই মামলা প্রত্যাহারের দাবিও করেন তিনি।

জানান, বর্ষীয়ান রাজনীতিক তরিকুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠী বিষয়ক সম্পাদক এম এ মালেক, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক নায়ক উজ্জ্বল, জাসাস সাধারণ সম্পাদক নায়ক হেলাল খান, সহ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদক সুলতানা আহমেদসহ বহু নেতার বাসায় পুলিশ হানা দিয়ে তাণ্ডব চালিয়েছে।

ঢাকাটাইমস/১৪সেপ্টেম্বর/বিইউ/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :