সুন্দরবনে বনরক্ষী নিখোঁজ

বাগেরহাট প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ নভেম্বর ২০১৮, ১৩:৫৪

সুন্দরবনে টহল দেয়ার সময় ট্রলার থেকে পা পিছলে নদীতে পড়ে বনরক্ষী সোহেল রানা তালুকদার (৩৭) নিখোঁজ হয়েছেন। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টা দিকে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরখোলা রেঞ্জের বগী স্টেশন সংলগ্ন বলেশ্বর নদীতে পড়ে তিনি নিখোঁজ হন।

বুধবার সকালে নিখোঁজ বনরক্ষী সোহেল রানাকে উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল তল্লাশি শুরু করেছে। এখনো তার সন্ধান পায়নি ডুবুরি দল। বুধবার দুপুরে বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মো. মাহমুদুল হাসান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

বনরক্ষী সোহেল রানা তালুকদার কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলার মুহুরীপাড়া গ্রামের এম এ হামিদ তালুকদারের ছেলে। তিনি ২০০৬ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর বনবিভাগে চাকরি পান। ২০১৬ সালের ৩ মার্চ  বাগেরহাটের সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের বগী স্টেশনে যোগদান করেন।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. মাহমুদুল হাসান বলেন, দুবলার চরে রাশ মেলা উপলক্ষ্যে বাড়তি নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে মঙ্গলবার রাতে শরণখোলা রেঞ্জের বগী স্টেশনে কর্মরত তিন বনরক্ষী ট্রলার নিয়ে বলেশ্বর নদীতে রওনা হন।

তারা টহল দেওয়ার সময় একটি মাছ ধরার ট্রলার দেখতে পেয়ে ট্রলারটিকে চ্যালেঞ্জ করলে তারা পালানোর চেষ্টা করে। ওই সময় ওই মাছ ধরার ট্রলারটিকে ধাওয়া করতে গিয়ে অন্ধকারে বনরক্ষী সোহেল রানা অসাবধনতাবশত পা পিছলে বলেশ^র নদীতে পড়ে যান।

পরে তার অপর দুই সঙ্গী সোহেলকে খুঁজতে নদীতে ঝাঁপ দিলেও তার সন্ধান পায়নি। সোহেল রানা সাঁতার জানতেন না, এ কারণে নদীতে পড়ে অল্প সময়ের মধ্যে তিনি তলিয়ে গেছেন। বুধবার সকালে ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়া হলে তাদের সাত সদস্যে চৌকস ডুবুরি দল সোহেলকে উদ্ধারে তল্লাশি চালাচ্ছে।

বনবিভাগের এই টহল দলটি নদীতে টহল দেয়ার সময় লাইভ জ্যাকেট না পরে টহলে যাওয়ায় এই দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে ওই বন কর্মকর্তা স্বীকার করেছেন।

বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক (ডিএডি) মো. মাসুদ সরদার  মোবাইল ফোনে বলেন, ‘বনবিভাগের কাছ থেকে খবর পেয়ে সকালে খুলনা ও বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের সাত সদস্যের ডুবুরি দল সোহেলকে উদ্ধারে কাজ করছে। এখনো আমরা তার সন্ধান পাইনি। তবে সাঁতার না জানায় নিখোঁজ সোহেলকে জীবিত পাওয়ার আশা ছেড়ে দিয়েছি।’

ঢাকাটাইমস/২১নভেম্বর/প্রতিনিধি/ওআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :