নারায়ণগঞ্জ-১

এরশাদ যাননি, নির্ভার গাজী

আতাউর রহমান সানি, রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ)
 | প্রকাশিত : ২৯ নভেম্বর ২০১৮, ১৬:০৪

নারায়নগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলা নিয়ে গঠিত সংসদীয় আসনটি আওয়ামী লীগের কাছ থেকে দাবি করলেও শেষ পর্যন্ত সেখানে মনোনয়নপত্র জমা দেননি জাতীয় পার্টির হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তার দলেরও কেউ প্রার্থী হতে চাননি সেখানে।

এর ফলে আওয়ামী লীগের বর্তমান সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী দুশ্চিন্তামুক্ত হয়েছেন। তিনিই মহাজোটের প্রার্থী হচ্ছেন এটা নিশ্চিত হয়ে গেছে।

২০০৮ সালে প্রথমবারের মতো ভোটে দাঁড়িয়ে জয় পাওয়া গাজী এবার টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। জাতীয় পার্টির কেউ সেখানে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার মতো ছিলেন না। আওয়ামী লীগ ওই আসনে গাজীকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণাও দেয়।

তবে এর মধ্যে গণমাধ্যমে খবর আসে আওয়ামী লীগের কাছে এই আসনটি দাবি করেছেন এরশাদ। আর এ কারণে গাজী শেষ পর্যন্ত নৌকা প্রতীকে সেখানে ভোটে দাঁড়াতে পারবেন কি না, এ নিয়ে তৈরি হয় সংশয়। উদ্বিগ্ন হয় তার সমর্থকরা।

বুধবার মনোনয়নপত্র জমাদানের সময়সীমা শেষ হলে এটা নিশ্চিত হয় যে, এরশাদ সেখানে যাচ্ছেন না আর এতে এক স্বস্তি নেমে আসে গাজী সমর্থকদের মধ্যে।

এই আসনে নৌকা প্রতীকে ভোট করতে মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে একটিই। আর সেটি গাজী দস্তগীরের পক্ষ থেকে। জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা রাব্বি মিয়া ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল ফাতে মো. সফিকুল ইসলামের তথ্য মতে এখানে ধানের শীষ প্রতীক চেয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন তিন জন।

তারা হলেন, কাজী মনিরুজ্জামান মনির, তৈমুর আলম খন্দকার এবং মুস্তাফিজুর রহমান ভুইয়া দিপু। অন্য তিন জন প্রার্থী হলেন সিপিবির মনিরুজ্জামান চন্দন এবং স্বতন্ত্র হাবিবুর রহমান ও রেহান আফজাল। 

নারায়ণগঞ্জ জেলায় সংসদীয় আসন আছে মোট পাঁচটি। এর মধ্যে দুটিতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী না দিয়ে জাতীয় পার্টিকে সমর্থন দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এগুলো হলো নারায়ণগঞ্জ-৩ ও নারায়ণগঞ্জ-৫।

(ঢাকাটাইমস/২৯নভেম্বর/প্রতিনিধি/ডব্লিউবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় নির্বাচন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :