‘বিএনপি-জামায়াত জোট বেকার তৈরির কারখানা’

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৬:১০

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক পানিসম্পদ মন্ত্রী রমেশ চন্দ্র সেন বলেছেন, ‘বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত সারাদেশে বেকার তৈরির কারখানা সৃষ্টি করে হাজার হাজার কর্মজীবী মানুষকে বেকার বানিয়েছে। আদমজি জুট মিল, খুলনার একাধিক জুট মিল এবং সর্বোপরি ঠাকুরগাঁও সিল্ক ফেক্টরি বন্ধ করে দিয়ে হাজার হাজার মানুষকে চাকুরি থেকে ছাটাই করে বেকার বানিয়েছে। আর এখন ভোট দরকার বলে বেকার ভাতা চালুর করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বেড়াচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘এটা তাদের চোখে ধাঁ ধাঁ লাগানোর কৌশল মাত্র। যারা মানুষকে বেকারত্ব উপহার দেয়, তাদের মুখে চাকরির বয়স সীমা তুলে দেয়ার কথা মানায় না।’

ঠাকুরগাঁও-১ আসনে নৌকা মার্কার প্রার্থী  আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন শুক্রবার সকালে সদর উপজেলার ২১ নং ঢোলারহাট ইউনিয়নে নির্বাচনী প্রচারের অংশ হিসেবে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের সঙ্গে গণসংযোগ পরবর্তী এক বৈঠকে এসব কথা বলেন।

ঢোলারহাট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি অখিল চন্দ্র রায়ের সভাপতিত্বে ঢোলারহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের বারান্দায় অনুষ্ঠিত বৈঠকে তিনি আরো বলেন, ‘ওরা মিথ্যা কথা বলে মানুষকে বোকা বানিয়ে ভোট পেতে চায়। কিন্তু তাদের ষড়যন্ত্র বাংলার জনগণ জেনে ফেলেছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা সমাজের দুঃস্থ মানুষের জন্য ১০ টাকা কেজিতে চাল দিয়েছি। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিয়েছি। ভিক্ষুকদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করেছি। যাদের জমি আছে, কিন্তু ঘর নেই- তাদের জন্য ঘরের ব্যবস্থা করেছে। সারের জন্য এবং বিদ্যুতের জন্য এখন আর মানুষকে প্রাণ দিতে হয় না। কারাগারে যেতে হয় না। যেসব জায়গায় বিদ্যুৎ দিতে পারিনি, সেখানে সোলার প্যানেলের ব্যবস্থা করেছি।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমান সরকারের সময়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বিনামূল্যে শতভাগ বইয়ের ব্যবস্থা করেছি। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শতভাগ উপবৃত্তি চালু করেছি। আগামীতে আমাদের সরকার আবার ক্ষমতায় এলে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরে মিড-ডে মিল চালু করা হবে। দুপুরে বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের খাওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।’

তিনি আওয়ামী লীগ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের ফিরিস্তি তুলে ধরে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে নৌকা মাকায় ভোট দেয়ার আহবান জানান।

পথসভায় আরো বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অরুণাংশু দত্ত টিটো, সাধারণ সম্পাদক মোশারুল ইসলাম, ঢোলারহাট ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের সীমান্ত কুমার বর্মন নির্মল, ঢোলারহাট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসান মিঞা প্রমুখ।

(ঢাকাটাইমস/১৪ডিসেম্বর/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :