ডেপের বিরুদ্ধে অভিযোগই কাল হল অ্যাম্বারের

বিনোদন ডেস্ক ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ২৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:৪৬
হলিউড জুটি জনি ডেপ ও অ্যাম্বার হার্ডের এমন অনেক ছবি এখন শুধুই স্মৃতি

‘অ্যাকুয়াম্যান’ তারকা অ্যাম্বার হ্যার্ড দাবি করেছেন, সাবেক স্বামী জনি ডেপের বিরুদ্ধে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ আনায় বেশ মাশুল দিতে হয়েছে তাকে। চলমান কাজ তো বটেই, অনেক নতুন সুযোগও হাতছাড়া হয়েছে তার। সম্প্রতি ওয়াশিংটন পোস্টে দেয়া এক বিবৃতিতে এ কথা জানিয়েছেন জনপ্রিয় এই হলিউড অভিনেত্রী।

বিবৃতিতে অ্যাম্বার বলেছেন, ‘বন্ধু এবং উপদেষ্টারা আমাকে বলেছিলেন, আমি আর কখনো অভিনেত্রী হিসাবে কাজ পাব না। আমাকে কালো তালিকায় দেওয়া হবে। সম্প্রতি একটি ইন্টারন্যাশনাল ফ্যাশন ব্র্যান্ডের জন্য শুটিং করেছি। কিন্তু  কাজটি পুরোপুরি শেষ হওয়ার আগেই আমাকে বাদ দেয়া হয়েছে।’  

বর্তমানে ‘জাস্টিস লিগ’ ছবিতে মিরা চরিত্রে অভিনয় করছেন অ্যাম্বার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত এই কাজটি শেষ করতে পারবেন কি না, তা নিয়েও সংশয় প্রকাশ করেছেন অভিনেত্রী।
তিনি অভিযোগ করেন, ‘গত কয়েক মাসে আমি খুব কমই বাসা থেকে বের হয়েছি। যখন বেরিয়েছি তখনই আমাকে ড্রোন অথবা ফটোগ্রাফাররা অনুসরণ করেছে। অনেকদিন আমি স্বাধীনভাবে চলতে-ফিরতে পারিনি।’  

অ্যাম্বারের কথায়, ‘মাঝে মাঝে এমন মনে হতো, যেন আমি গণআদালতে বিচারের মুখোমুখি হয়েছি। প্রতিটি মুহূর্ত এভাবেই কেটেছে। জীবন ও জীবিকা অনেকগুলো সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর ছিল। যেখানে আমার নিয়ন্ত্রণ ছিল না।’

জনি ডেপের সঙ্গে অ্যাম্বারের বিয়ে হয়েছিল ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে। সে সম্পর্ক টিকেছিল এক বছর তিন মাস। ২০১৬ সালের মে মাসে তারা বিচ্ছেদের আবেদন করেন। ওই সময় ডেপের বিরুদ্ধে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ এনেছিলেন অ্যাম্বার। ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে তাদের বিচ্ছেদ কার্যকর হয়।

বিচ্ছেদের ক্ষতিপূরণের টাকা জোগাতে নিজের বাড়ি বিক্রি করে দেন জনি ডেপ। কিন্তু সে টাকা নিজেও নেননি অ্যাম্বার হার্ড। দান করে দিয়েছিলেন একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনকে।

ঢাকা টাইমস/২৩ ডিসেম্বর/এসএস/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :