ভোলা-১

হাত পাখার প্রচারণায় বাধা দেয়ার অভিযোগ

প্রকাশ | ২৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৯:১০

ভোলা প্রতিবেদক

শেষ সময়ে এসে নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা দেয়ার অভিযোগ তুলেছেন ভোলা-১ (সদর) আসনের ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মুফতি ইয়াছিন নবীপুরী। বুধবার দুপুর ১২টার দিকে দলটির জেলা কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই অভিযোগ করেন।

লিখিত বক্তব্যে হাত পাখার প্রার্থী বলেন, ‘বিজয় নিশ্চিত জেনে নৌকা প্রতীকের নেতাকর্মীরা বিভিন্ন ইউনিয়নে আমাদের নেতাকর্মীদের হুমকি-ধামকি এবং গণসংযোগ ও পোস্টার লাগাতে বাধা দিচ্ছেন।

দক্ষিণ দিঘলদী ইউনিয়নের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমাদের নেতাকর্মীদের ভয়-ভীতি দেখিয়ে প্রচারণায় বাধা দিচ্ছেন এবং লাগানো পোস্টার ছিড়ে ফেলছেন। এছাড়া উপজেলার ভেদুরিয়া, ফেরীঘাট, রাজাপুর ইউনিয়নের ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ড, পূর্ব ইলিশা ৬ নং ওয়ার্ড ও কাচিয়া ইউনিয়নে প্রচারণায়ও বাধা দিচ্ছেন।

ইয়াছিন নবীপুরীর অভিযোগ, ‘মঙ্গলবার শিবপুর ইউনিয়নের রতনপুর বাজারে আমার গণসংযোগ চলাকালীন হাত পাখার কর্মী জামাল উদ্দিনকে নৌকা প্রতীকের কর্মীরা মারধর করে একটি দোকানে আটকে রাখে। আমি এসব কর্মকা-ের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। প্রশাসনের কাছে দোষীদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবি করছি।’
তিনি বলেন, ‘আমি আশা করি, ভোলা-১ (সদর) আসনের জনগণ আগামী ৩০ ডিসেম্বর কেন্দ্রে গিয়ে নির্বিঘেœ ভোট দিতে পারবেন।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন ভোলা জেলার সহ-সভাপতি মাওলানা তাজ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা তরিকুল ইসলাম, ভোলা পৌর শাখার সভাপতি মাওলানা আতাউর রহমান, ভোলা-২ আসনে হাতপাখার প্রার্থী মাওলানা ওবায়দুর রহমান, শ্রমিক আন্দোলনের জেলা সভাপতি মাওলানা গোলাম মোরশেদ ও ছাত্র আন্দোলনের জেলা সভাপতি সাইফুল ইসলাম।

এদিকে হাতপাখার প্রার্থীর অভিযোগ অস্বীকার করে ভোলা সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন বলেন, ‘আমাদের দলের পক্ষ থেকে কাউকে প্রচারণায় বাধা দেয়া হচ্ছে না। অতি উৎসাহী কিছু লোক এসব ঘটাতে পারে। আমরা এসবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি। যাতে করে সকল দল নিরবিচ্ছিন্নভাবে প্রচার- প্রচারণা চালাতে পারে।’

ঢাকা টাইমস/২৬ ডিসেম্বর/প্রতিবেদক/এএইচ