পরিচালনায় নেমেছেন নওশাবা

বিনোদন প্রতিবেদক
| আপডেট : ০৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১৩:১২ | প্রকাশিত : ০৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১২:৩৯

ছোট ও বড় পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদ। মঞ্চ নাটক এবং পরবর্তীতে টিভি নাটক দিয়ে শোবিজে যাত্রা শুরু হলেও বর্তমানে তিনি চলচ্চিত্রেরও অন্যতম অংশ। ‘প্রতিরুদ্ধ’, ‘ভুবন মাঝি’, ‘চন্দ্রবর্তীর কথা’ এবং ‘ঢাকা অ্যাটাক’-এর মতো ছবি রয়েছে তার ঝুলিতে। গত ২১ ডিসেম্বর মুক্তি পেয়েছে নওশাবার ‘স্বপ্নের ঘর’। ভৌতিক গল্পের এই ছবিতে তিনি অভিনয় করেছেন নেতিবাচক চরিত্রে। নওশাবা এবার হাজির হতে চলেছেন নতুন এক পরিচয়ে। পরিচালনায় হাত লাগিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার রাতে সারা ফ্যায়রুজ যাইমার উপস্থাপনায় প্রথম আলোর ‘লাক্স ক্যাফে লাইভ’ অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে এই কথা জানান নওশাবা। জানালেন, ‘আলোর খোঁজে’ নামে একটি শর্টফিল্ম পরিচালনা করছেন তিনি। অভিনেত্রীর কথায়, ‘শর্টফিল্মটির কিছু অংশের শুটিং এখনো বাকি। পুরোপুরি নির্মাণ হলেই এর মুক্তির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেব। সামনে আরও কিছু কাজ হাতে আছে। আশা করি, ‘এই পরিচালনার মধ্যদিয়ে নিজেকে খুঁজে পাব। এ জন্য নিজেকে শিল্পের কাছে সমর্পণ করছি।’

পরিচালনায় আসা প্রসঙ্গে নওশাবা বলেন, ‘আমার পড়াশোনা চারুকলার পেইন্টিংয়ে। ফ্রেম আমার খুব ভালোলাগে। যখন সিনেমার শুটিং করি, তখন নিজেকে একটা ফ্রেমে দেখতে ভালো লাগে। কম্পোজিশন, কালার, নাচ-গান, আর্ট ডিরেকশন- সবকিছুর একটা মেলবন্ধনই তো সিনেমা। তাই এই জায়গাটার প্রতি দুর্বলতা আগে থেকেই ছিল। চলচ্চিত্রে আসার পরে সেটা আরও বেশি টানে। কেন টানে সেটা জানতেই পরিচালনার পেছনে ছুটছি। তাছাড়া ‘টুগেদার উইকেন্ড’ নামে আমাদের একটা প্লাটফর্ম আছে। সেখানে আমরা বন্ধুরা মিলে কাজ করি।’

পাশাপাশি ২১ ডিসেম্বর মুক্তিপ্রাপ্ত ‘স্বপ্নের ঘর’ প্রসঙ্গেও কথা বলেন নওশাবা। জানান, ‘দুই বছর আগে এটির শুটিং শুরু হয়েছিল। তখন সবে ব্লকবাস্টার ‘ঢাকা অ্যাটাক’ মুক্তি পেয়েছে। তাই ভিন্ন কোনো চরিত্রের অপেক্ষায় ছিলাম। সে সময় পরিচালক অংশু ভাই ‘স্বপ্নের ঘর’-এর স্ক্রিপ্ট নিয়ে আসেন। আমার চরিত্রটা একেবারেই অন্যরকম ছিল। অভিনয়ের সুযোগও ছিল প্রচুর। তাই রাজি হয়ে গেলাম। তবে কখনো হরর সিনেমা দেখিনি। কোনো অভিজ্ঞতাও ছিল না। তারপরও সবার প্রচেষ্টায় একটা সুন্দর ছবি তৈরি হয়েছে।’

‘স্বপ্নের ঘর’-এ নওশাবা ছাড়াও আছেন আনিসুর রহমান মিলন, জাকিয়া বারী মম এবং শিমুল খান। ২১ ডিসেম্বর অনেকটা অজান্তেই এই ছবি মুক্তি পায়। এ সম্পর্কে নায়িকা বলেন, ‘আমরা কোনো প্রচারণা চালাতে পারিনি। প্রথমদিন হলে যাওয়ার আগে তাই ভেবেছিলাম, হয়তো গুটিকয়েক দর্শক দেখব। কিন্তু হলে গিয়েই আমার ধারণা বদলে যায়। হলভর্তি দর্শক। তবে আরও দর্শক পেতাম যদি মুক্তির আগে ঠিকঠাক প্রচারণা চালানো যেত।’

দর্শকদের উদ্দেশে নওশাবা বলেন, ‘স্বপ্নের ঘর এখনো হলে চলছে। বাংলাদেশে তো হরর মুভি খুব একটা তৈরি হয়নি। কাজেই ছবিটা সবারই দেখা উচিত। দেখার পর বকা দেন, প্রশংসা করেন, আলোচনা-সমালোচনা করেন সমস্যা নেই। কিন্তু আগে দেখেন।’

নওশাবা বর্তমানে ‘ঢাকা ড্রিমস’ নামে একটি ছবির শুটিং করছেন। যেখানে তিনি অভিনয় করছেন পারুল চরিত্রে। পাশাপাশি চালিয়ে যাচ্ছেন ‘আলোর খোঁজে’ শর্টফিল্মের পরিচালনার কাজ। কাজেই নাটক-সিনেমায় মুগ্ধতা ছড়ানো নওশাবা এবার পরিচালক হিসেবে কতটা মাত করতে পারেন সেটা দেখার অপেক্ষায় তার ভক্তরা।

ঢাকা টাইমস/০৪ জানুয়ারি/এএইচ  

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :