শাহনাজের বাইক ছিনতাইয়ে এই সেই যুবক জনি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ১৬ জানুয়ারি ২০১৯, ১৫:৪৭ | প্রকাশিত : ১৬ জানুয়ারি ২০১৯, ১৩:৪৬

বাইক চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করা শাহনাজ আক্তার পুতুলের স্কুটি চুরি করার অভিযোগে আটক যুবকের নাম জুবাইদুল ইসলাম জনি। থাকেন নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায়। চুরি হওয়া স্কুটিটিও নারায়ণগঞ্জ থেকে উদ্ধার করা হয়।

জনির বাড়ি বরিশালে। তবে কয়েক বছর আগে তার বাবা নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় বাড়ি করার পর এখানে চলে আসেন।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জনি পুলিশকে জানিয়েছেন, তিনিও পাঠাও রাইডার। আবার যাত্রীর ছদ্মবেশে বাইক চুরির সঙ্গেও সম্পৃক্ততার তথ্য রয়েছে। তাকে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করবে বাহিনীটি।

দুইদিন আগে আটক জনির সঙ্গে পরিচয় হয় অ্যাপভিত্তিক রাইড শেয়ারিং বেছে নেওয়া শাহনাজের। তার আগে থেকে শাহনাজের জীবন সংগ্রামের কথাটি গণমাধ্যমে উঠে এসেছিল।

ঢাকা মহানগর পুলিশের তেজগাঁও অঞ্চলের উপ কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার জানান, শাহনাজের বাইকে চড়ে তার সঙ্গে পরিচিত হন জনি। বলেন, দিনে তিন থেকে চারশ টাকা আয় করেন। তার পরিচিত বেসরকারি কোম্পানি আছে। সেখানে ভাড়া মারলে প্রত্যেকদিন পাঁচশ টাকা করে দেওয়া হবে।

এই আশ্বাস পেয়ে মঙ্গলবার জনিকে কল দেন শাহনাজ। রাজধানীর খামারবাড়িতে দেখা করেন। পরে বিমানবন্দর এলাকায় ওই লোকের সঙ্গে পরিচিত হতে যান তারা। সেখান থেকে তিন জন মিলে আবার আসেন কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে। সেখানে স্কুটি চালানো শেখার কথা বলে বাইক চালিয়ে চলে যান জনি।

বাইক নিয়ে জনি চলে গেছেন বুঝতে পেরে শাহনাজ ছুটে যান শেরেবাংলা নগর থানায়। সেই সঙ্গে বিভিন্ন গণমাধ্যমেও এই সংবাদ চলে আসে। আর পুলিশও বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে নেয়।

পুলিশ মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে জানতে পারেন জনি ফতুল্লার সাইনবোর্ড এলাকায় অবস্থান করছে। পরে তেজগাঁও জোনের সহকারী উপকমিশনার আবু তৈয়ব মোহাম্মদ আরিফ হোসেন ফতুল্লায় গিয়ে জনিকে গ্রেপ্তার করেন। আর তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী একটি গ্যারেজ থেকে বাইকটি উদ্ধার করা হয়।

ঢাকাটাইমস/১৬জানুয়ারি/ওআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত