তারেকের সাবেক এপিএস অপু কারাগারে

আদালত প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৭ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:১৫ | প্রকাশিত : ১৭ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:১৩

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাবেক এপিএস মিয়া নূরুদ্দীন আহম্মেদ অপুকে রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠিয়েছে ঢাকার একটি আদালত। ‘ভোটের আগে টাকা ছড়ানোর’ মামলায় পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষে এই আদেশ এসেছে।

বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর হাকিম শহিদুল ইসলাম কারাগারে পাঠানোর এই আদেশ দেন। এর আগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির ইনস্পেক্টর আশরাফুল ইসলাম আসামিকে আদালতে হাজির করে কারাগারে পাঠানোর আবেদন করেন।

অন্যদিকে অপুর আইনজীবী তরিকুল ইসলামসহ কয়েকজন আইনজীবী জামিনের আবেদন করেন। তারা বলেন, অপু বিএনপির একজন সক্রিয় সদস্য ও তারেক রহমানের বন্ধু। এছাড়া তার আর কোনো অপরাধ নেই।

অপু গত ৩০ ডিসেম্বরের ভোটে শরীয়তপুর-৩ আসনে বিএনপির সংসদ সদস্য প্রার্থী ছিলেন। গত ১০ জানুয়ারি তাকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে পাঠানো হয়।
 
গত ৪ জানুয়ারি রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতাল থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। পরে তাকে ভোটের আগে মতিঝিল থেকে আট কোটি টাকা উদ্ধারের মামলা ও সন্ত্রাসবিরোধী আইনের মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়।
গত ২৪ ডিসেম্বর মতিঝিল থানাধীন সিটি সেন্টারের ইউনাইটেড এন্টারপ্রাইজ অ্যান্ড ইউনাইটেড করপোরেশনের এমডি আলী হায়দারকে আটক করা হয়। জব্দ হয় তিন কোটি ১০ লাখ ৭৩ হাজার টাকা। পরে তার দেয়া তথ্যমতে একটি মানি এক্সচেঞ্জ থেকে আরও পাঁচ কোটি টাকা জব্দ হয়।

পরে হায়দারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পল্টনের হাউজ বিল্ডিং রোডের বায়তুল খায়ের টাওয়ারের সিটি মানি এক্সচেঞ্জ থেকে আরও পাঁচ কোটি টাকা জব্দ করা হয়।

আলী হায়দার জিজ্ঞাসাবাদে জানান, তার মামা মিয়া নূর উদ্দিন আহমেদ অপুর নির্বাচনে অবৈধ প্রভাব খাটানো ও সহিংসতার জন্য আমেনা এন্টারপ্রাইজ থেকে তিন কোটি টাকা নেওয়া হয়। পরদিন আমেনা এন্টারপ্রাইজ থেকে চার লাখ ৬৫ হাজার ৬৫০ টাকাসহ গ্রেপ্তার করা হয়। আসামিরা জব্দকৃত টাকা আসন্ন সংসদ নির্বাচনে অবৈধ প্রভাব ও নাশকতা সৃষ্টি কর কাজে ব্যবহার করতো।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাবেক সহসভাপতি অপু বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে তারেক রহমানের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করতেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আদালত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত