অক্সিজেনবিহীন পাঁচ সেকেন্ডের পৃথিবীতে যা যা ঘটবে

নাসরুল্লাহ মাসুদ
 | প্রকাশিত : ১৯ জানুয়ারি ২০১৯, ১৫:৪১

প্রাচুর্যের দিক থেকে মহাবিশ্বে বিদ্যমান রাসায়নিক মৌলসমূহের মাঝে অক্সিজেনের অবস্থান তৃতীয়। হাইড্রোজেন এবং হিলিয়ামের পরেই বিশ্বব্রহ্মা-ে অক্সিজেনের আধিপত্য বিরাজ করছে। প্রাণীদের শ্বসনকার্য, বিভিন্ন ধরনের গুরুত্বপূর্ণ রাসায়নিক যৌগ তৈরিসহ আরও অনেক জানা অজানা ক্ষেত্রে অক্সিজেনের প্রয়োগ বা ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তবে অক্সিজেন আমাদের জন্য অতি সহজলভ্য হওয়ার কারণে আমরা এর প্রকৃত গুরুত্ব অনেক সময় অনুধাবন করতে পারি না। চলুন তবে জেনে নেই, শুধু পাঁচ সেকেন্ডের জন্য যদি পৃথিবী থেকে অক্সিজেন পুরোপুরি উধাও হয়ে যায়, তাহলে কি ঘটবে?

প্রথমে শুরু করা যাক পৃথিবীর বায়ুমন্ডল দিয়ে। আমরা জানি পৃথিবীর বায়ুম-লে পাওয়া গ্যাসগুলোর মাঝে অক্সিজেনের পরিমাণ শতকরা ২১ শতাংশ। বাকি ৭৮ শতাংশ রয়েছে নাইট্রোজেন এবং ১ শতাংশের মতো রয়েছে আর্গন, কার্বন ডাই অক্সাইড, জলীয় বাষ্প ইত্যাদি। অক্সিজেন উধাও হয়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বায়ুমন্ডলে তার অস্তিত্ব বিলীন হয়ে যাবে। ফলে মানুষের যাতায়াত ব্যবস্থা বা যানবাহন চলাচলে এক বিস্ময়কর সমস্যার সৃষ্টি হবে। কারণ অক্সিজেনের উপস্থিতিতে দহন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়। তাই অক্সিজেনের অনুপস্থিতিতে অন্তর্দহ ইঞ্জিনগুলোর পক্ষে তাপশক্তিকে কাজে রুপান্তর করা সম্ভব হবে না। যার ফলে ইঞ্জিনের ভেতরে থাকা পিস্টনটিকে ধাক্কা দেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় শক্তি প্রদান করা যাবে না। ফলে চলন্ত গাড়িগুলো তৎক্ষণাৎ থেমে যাবে। 

এ তো গেল স্থলভাগের কথা। এবার তাহলে উড়োজাহাজের প্রসঙ্গে আসা যাক। পরিসংখ্যান বলছে, প্রতি ১ সেকেন্ডে পৃথিবীতে প্রায় ১০০টি বিমান বিমানবন্দরের রানওয়েতে ওঠা নামা করে। বায়ুম-লে অক্সিজেন  না থাকায় পৃথিবীর সমগ্র উড্ডয়নরত অনেক বিমান আকস্মিকভাবে ভূপৃষ্ঠে আছড়ে পড়বে। তবে অনেক উঁচুতে উড়ে চলা বিমানগুলো এই যাত্রায় রক্ষা পেয়েও যেতে পারে।

জ্যোতির্বিদ ও জীববিজ্ঞানীদের মতে, অক্সিজেন যেখানে আছে সেখানেই প্রাণ আছে। আর প্রায় প্রত্যেক প্রাণীরই জীবনযাপনের একটি অপরিহার্য উপাদান হল অক্সিজেন। মানুষ বেঁচে থাকার নিমিত্তে বাতাস থেকে নিরন্তর অক্সিজেন গ্রহণ করে। তাই অক্সিজেনবিহীন ৫ সেকেন্ড মানবজীবনে অনেক অস্বস্তিকর ও ভয়ংকর পরিবেশের সৃষ্টি করবে। মানবদেহের শ্বসন প্রক্রিয়ার শেষ ধাপে অক্সিজেন খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। 

এবার একটু ভিন্ন আঙ্গিকে চিন্তা করা যাক। পৃথিবী থেকে অক্সিজেনের সব পরমাণু পাঁচ সেকেন্ডের জন্য বিলুপ্ত হয়ে গেলে কি ঘটবে? আমরা জানি, বিভিন্ন ধরনের রাসায়নিক বিক্রিয়ায় অক্সিজেন বিক্রিয়ক বা উৎপাদের কাজ করে। এ ছাড়াও পানি, ওজোন গ্যাস, সিলিকন ডাই অক্সাইড বা কোয়ার্টজের মতো গুরুত্বপূর্ণ রাসায়নিক যৌগের মাঝে অক্সিজেন রয়েছে। তাই অক্সিজেন পরমাণুর বিলুপ্তি পৃথিবীর রাসায়নিক গঠনে ভয়াবহ পরিবর্তন সৃষ্টি করবে। অক্সিজেন পরমাণুর অনুপস্থিতিতে আমাদের চারপাশে বিদ্যমান অধিকাংশ জড়বস্তু ধাতব আবর্জনাতে পরিণত হবে। 

ভূত্বকের উপাদানসমূহের মাঝে ৪৬% অক্সিজেন রয়েছে। ফলে আমাদের শেষ সম্বল পায়ের নিচে থাকা মাটিটাও আর থাকবে না। এ ছাড়াও পৃথিবীর ৭০ শতাংশ জায়গাজুড়ে থাকা সাগরের পানির অণুতেও অক্সিজেন রয়েছে। ফলে অক্সিজেন পরমাণু না থাকলে সমস্ত পানি বাষ্পীভূত হয়ে হাইড্রোজেন গ্যাসে পরিণত হবে। পরবর্তীতে পাঁচ সেকেন্ড পরে অক্সিজেন পরমাণু ফিরে এলে সেই হাইড্রোজেন গ্যাস অক্সিজেনের সঙ্গে রাসায়নিক বিক্রিয়া করবে। এর ফলে প্রচুর তাপ নির্গত হবে এবং পুনরায় পানি তৈরি করবে। ফলে পাঁচ সেকেন্ডের অক্সিজেনহীনতাই আমাদের চেনাজানা পৃথিবীতে তছনছ করে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট।

কিন্তু দুঃখের বিষয় হলো, সেই ভয়ানক পৃথিবীর চেহারা দেখার জন্য আমরা কেউই জীবিত থাকব না। শ্বাস বন্ধ রেখে হয়ত আমরা বায়ুম-লের অক্সিজেনের অভাব পূরণ করতে পারব। তবে আমাদের শরীরের মাঝে থাকা বিভিন্ন জৈব যৌগের মাঝেও রয়েছে অক্সিজেন। তাই অক্সিজেনের সব পরমাণু বিলুপ্ত হলে আমাদের শরীরের জীবন্ত কোষগুলো সাগরের পানির মতো বাষ্পীভবনের মাধ্যমে হাইড্রোজেন গ্যাসে পরিণত হয়ে শূন্যে ছড়িয়ে যাবে। অক্সিজেন এবং হাইড্রোজেন পরমাণু না থাকার কারণে আমরা আমাদের শরীরের গাঠনিক উপাদানের প্রায় ৭৫ শতাংশ হারিয়ে ফেলব।

(ঢাকাটাইমস/১৯জানুয়ারি/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত