পাগলা মসজিদের দানবাক্সে আরও তিন কোটি ১৩ লাখ

আমিনুল হক সাদী, কিশোরগঞ্জ
 | প্রকাশিত : ১৯ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:১৪

কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদের দানবাক্সে এবার পাওয়া গেছে এক কোটি ১৩ লাখ ৩৩ হাজার ৪৭৩ টাকা। এছাড়া সোনা ও রূপার অলংকার এবং বৈদেশিক কিছু মুদ্রাও পাওয়া গেছে। তিন মাস ছয় দিন পর শনিবার দানবাক্স খোলা হয়েছে।

সকালে জেলা প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে দানবাক্স খোলা হয়। সিন্দুকের টাকাগুলো প্রথমে বস্তায় ভরা হয়। এরপর শুরু হয় গণনার কাজ। বিকালে গণনা শেষে দানের এ টাকার হিসাব পাওয়া যায়।

কিশোরগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হাবিবুর রহমানের তত্ত্বাবধানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজির হোসেন, শরীফুল আলম ও সাগুফতা হক টাকা গণনার কাজ তদারকি করেন। এ সময় প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তা, মসজিদ পরিচালনা কমিটির সদস্য ও সার্বক্ষণিক দায়িত্বরত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ গত বছরের ১৩ অক্টোবর পাগলা মসজিদের সিন্দুকগুলো খোলা হয়। তখন এক কোটি ১৩ লাখ ৯৬ হাজার ৬৮৫ টাকা পাওয়া যায়।
অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান জানান, তিন মাস পরপর মসজিদের দানবাক্সগুলো খোলা হয়। এবার তিন মাস ছয় দিন পর দানবাক্সগুলো খোলা হয়েছে। তিনি জানান, টাকাগুলো রূপালী ব্যাংক কিশোরগঞ্জ শাখায় জমা করা হয়েছে। আর যে সোনা ও রূপার অলংকার পাওয়া গেছে, তা আগে পাওয়া অলংকারের সঙ্গে যোগ করে সিন্দুকে রেখে দেয়া হয়েছে। এছাড়াও দানে পাওয়া ছাগল, হাস-মুরগি প্রতি সপ্তাহেই নির্ধারিত দিনে নিলামে বিক্রি করা হয়।

(ঢাকাটাইমস/১৯জানুয়ারি/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :