কুবিতে হলের ডাইনিং বন্ধে ভোগান্তিতে ছাত্রীরা

কুবি প্রতিবেদক
 | প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ১০:২৬

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রীদের আবাসিক হল নওয়াব ফয়জুন্নেছা চৌধুরাণীতে এক সপ্তাহ ধরে ডাইনিং বন্ধ হয়ে আছে। হলে খাবার না থাকায় বাহিরের হোটেল থেকে নিম্নমানের খাবার কিনে খেতে হচ্ছে শিক্ষার্থীদের। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন হলটির প্রায় তিন শ ছাত্রী।

হলটির কয়েকজন আবাসিক ছাত্রী জানায়, দীর্ঘদিন ধরে হলের ছাত্রীদের পরিচালনায় ডাইনিং পরিচালিত হয়ে আসছিল। যেখানে ছাত্রীরা অগ্রিম একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা দিয়ে মেস ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে ডাইনিং চালিয়ে আসছিলেন।

গত ১৩ জানুয়ারি রাতের খাবারের সময় মিলের হিসাব নিয়ে হলের ডাইনিং ম্যানেজার বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী আসমা আক্তার লিপির সঙ্গে হলের বাবুর্চিদের কথা কাটাকাটি হয়। বাবুর্চিরা হল ছাত্রলীগ নেত্রী ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আইভী রহমানকে জানায়। পরে ডাইনিং ম্যানেজারের সঙ্গে ছাত্রলীগ নেত্রী আইভীরও বাকবিত-া হয়। এক পর্যায়ে আইভী তাকে (লিপি) রুমে নিয়ে মারধর করেন বলে জানান ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থী।

বিষয়টি জানতে পেরে সেদিন রাতেই হলটিতে যান বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (চলতি দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের, হলের আবাসিক শিক্ষক মো. সাদেকুজ্জামান ও জান্নাতুল ফেরদৌস এবং বিশ্ববিদ্যালয় গণমাধ্যম উপদেষ্টা মো. মাহবুবুল হক ভূঁইয়া। বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ইলিয়াস হোসেন সবুজ ও সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মাজেদও সেদিন উপস্থিত ছিলেন। হল প্রাধ্যক্ষের কক্ষে বিষয়টি মীমাংসা করতে বসেন উপস্থিত শিক্ষকরা।

ওই সময় হলের ডাইনিং ম্যানেজার আসমা আক্তার লিপি জানান, যাদের মিলে জমা দেয়া টাকা শেষ হয়েছিল, তিনি নোটিশ দিয়ে তাদের মিল বন্ধ রেখেছিলেন। নোটিশ দেয়ার পরও অনেকে মিল নিয়ে যায়। এতে কিছু ছাত্রী খাবার পায়নি। বিষয়টি নিয়ে হট্টগোল হলে তিনি বাবুর্চিকে জিজ্ঞাসা করতে যান। এ সময় বাবুর্চির সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ নেত্রী আইভী রহমানকে জানাবেন বলে বাবুর্চি লিপিকে শাসায়।

লিপি আরও বলেন, ‘আমি বাবুর্চিকে বলি আপনি যার কাছে যাওয়ার যেতে পারেন। আমার হিসাব স্বচ্ছ। এ কথা শোনার পর ছাত্রলীগ নেত্রী আইভী রহমান (প্রতœতত্ত্ব ৯ম), ইসরাত জাহান জেরিন (পদার্থবিজ্ঞান ১০ম) ও অপর্ণা নাথ আমাকে আইভীর রুমে নিয়ে গিয়ে উচ্চস্বরে সাউন্ডবক্স চালিয়ে মারধর করে।’

তবে ছাত্রলীগ নেত্রী আইভী মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, ‘মারধরের অভিযোগ সত্য নয়। ডাইনিংয়ে বাকবিত-ার বিষয়টি মীমাংসা করতে আমরা তাকে রুমে ডেকেছি। মিলের হিসাব চেয়েছি। পরে তার সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি মিটমাট হয়েছে।’

ডাইনিং চলার বিষয়ে ছাত্রলীগের এই নেত্রী বলেন, ‘এখন থেকে ছাত্রলীগের তত্ত্বাবধানে ডাইনিং চলবে। সাধারণ শিক্ষার্থীদের খাবার ঠিকঠাক হচ্ছে কি না তা দেখার অধিকার ছাত্রলীগের আছে।’

এই ঘটনার পর থেকে সোমবার এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ছাত্রী হলটির ডাইনিং বন্ধ রয়েছে। এদিকে গত ৬ জানুয়ারি থেকে হলটির প্রাধ্যক্ষ নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এন এম রবিউল আউয়াল চৌধুরী শিক্ষাছুটিতে যাওয়ায় হল প্রাধ্যক্ষের পদটি শূন্য রয়েছে। এমতাবস্থায় হলের ডাইনিং শুরু হওয়ার ব্যাপারে শঙ্কায় আছেন আবাসিক ছাত্রীরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ছাত্রী জানান, হলে খাবার না থাকায় তাদের বেশ দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বাহির থেকে খাবার এনে খাওয়ায় যেমন স্বাস্থ্যঝুঁকি আছে, তেমনি অতিরিক্ত টাকাও খরচ হচ্ছে তাদের। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখতে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান তারা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার (চলতি দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের জানান, ‘ছাত্রী হলে ঝামেলার বিষয়টি আমরা ওইদিন (১৩ জানুয়ারি) রাতে মীমাংসা করেছিলাম। তবে এখন পর্যন্ত ডাইনিং বন্ধ আছে- তা জানতাম না। এটা নিয়ে ব্যবস্থা নিতে হল প্রশাসনকে অবহিত করছি। আর খুব তাড়াতাড়ি হলে প্রাধ্যক্ষ নিয়োগ দেওয়া হবে।’

ছাত্রলীগের ডাইনিং চালানোর বিষয়ে রেজিস্ট্রার জানান, ‘ডাইনিং চালানোর সিদ্ধান্ত দেবে হল প্রশাসন। তবে হিসাব যথাযথ রেখে ছাত্রলীগের কেউ সেই দায়িত্ব নিতে চাইলে তাকে দেওয়া যেতে পারে।

ঢাকা টাইমস/২১জানুয়ারি/প্রতিনিধি/এমআর

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত