অর্থ আত্মসাতের দুই মামলায় ফুটবলার কায়সার হামিদ কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:৪৫ | প্রকাশিত : ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:৪১

নিউওয়ে মাল্টি পারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির নামে প্রতারণারমূলক অর্থ আত্মসাতের দুইটি মামলায় সাবেক ফুটবলার কায়সার হামিদকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদ জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর এ আদেশ দেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পুলিশ পরিদর্শক মো. শামসুদ্দিন এ ফুটবলারকে আদালতে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন।

শুনানিকালে আইনজীবী মো. আবু সাঈদ আসামি পক্ষে জামিনের আবেদন করলে আদালত তার জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। শুনানি সময় কায়সার হামিদের স্ত্রী শাহানাজ সুলতানা হামিদ লোপা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে রবিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোড থেকে কায়সার হামিদকে গ্রেপ্তার করে সিআইডির একটি দল।

আদালতে হাজির করা বনানী থানার দুইটি মামলাই ২০১৩ সালের। মামলাগুলোর একটির বাদী রাজধানীর বাড্ডার জনৈক জালাল উদ্দিন এবং অপরটির একই এলাকার মো. আবু বক্কর (সালাম)। ২০১৩ সালের ১৩ মার্চ ঢাকা সিএমএম আদালতে তারা মামলাগুলোর দায়ের করেন। আদালত মামলাগুলোকে এজাহার হিসেবে গ্রহণের নির্দেশ দেয় আদালত। পরে ২০১৪ সালের ২৫ এপ্রিল মামলাগুলো থানায় এজাহারভুক্ত হয়।

মামলাগুলোয় কায়সার হামিদ প্রতিষ্ঠানটির সেক্রেটারী হিসেবে ২ নম্বর আসামি। তিনি ছাড়াও মামলাটিতে আরও ৯ জন আসামি রয়েছেন। অপর আসামিরা হলেন, প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান সনজিত কুমার দাস, ট্রেজাহার তরিক উল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান এসএম সামসুদোহা তৌফিক, যুগ্ম সম্পাদক তাজিম আনোয়ার, এক্সিকিউটিভ সদস্য মনির হোসেন, আতাউর রহমান, মোশারফ হোসেন, সাইফুল ইসলাম ও মো. বাদল। আসামিদের মধ্যে মনির হোসেন জামিনে রয়েছেন এবং অপর আসামিরা পলাতক।

মামলায় বাদী জালালের অভিযোগ এক লাখ টাকায় বছরে সম পরিমান লভ্যাংশ দেয়ার দেয়ার প্রতিশ্রুতিতে তিনি ২০১২ সালের ১২ জানুয়ারি থেকে ৩০ জুলাই পর্যন্ত ৯ লাখ টাকা বিনিয়োগ করেন। কিন্তু আসামিরা আসল ও লভ্যাংশ কোন টাকাই প্রদান করেননি। একই ভাবে আবু বক্করের অভিযোগ তিনি একই লভ্যাংশে ১৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকা বিনিয়োগ করলেও আসামিরা আসল ও লভ্যাংশ কোন টাকাই প্রদান করে আত্মসাত করেছেন।

ঢাকাটাইমস/২১জানুয়ারি/আরজেড/ডিএম

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :