সেই রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিল ভারত

মোহাম্মদ আরজু, ব্রাহ্মণবাড়িয়া
| আপডেট : ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৬:১০ | প্রকাশিত : ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৪:৫২

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা সীমান্তের শূন্য রেখায় তিন ধরে আটকে থাকা ৩১ রোহিঙ্গাকে ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ নিয়ে গেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি।

মঙ্গলবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়নের কাজিয়াতলী সীমান্তের শূন্যরেখা থেকে ফিরিয়ে নেওয়া হয় বলে ঢাকা টাইমসকে নিশ্চিত করেছেন ২৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মুহাম্মদ গোলাম কবির।

গত শুক্রবার সন্ধ্যার পর ওই রোহিঙ্গারা কাজিয়াতলী সীমান্তের শূন্যরেখায় অবস্থান নেয়। এদের মধ্যে আটজন পুরুষ, ছয়জন নারী ও ১৭ শিশু ছিলেন। তাদেরকে বিএসএফ জোরপূর্বক বাংলাদেশে পাঠানোর চেষ্টা করে বলে তখন গোপীনাথপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম মান্নান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। 

বিজিবিও রোহিঙ্গা নাগরিকরা যেন বাংলাদেশে ডুকতে না পারে সেজন্য সীমান্তে সতর্ক অবস্থান নেয়। এর ফলে টানা চারদিন সীমান্তের শূন্যরেখায় কৃষি জমিতে অবস্থান করে তারা। এতে করে প্রচণ্ড  শীত ও অনাহারে থাকায় অসুস্থ হয়ে পড়ে রোহিঙ্গা শিশুরা। 

বিষয়টি সমাধানে একাধিকবার পতাকা বৈঠকে মিলিত হয় বিএসএফ ও বিজিবির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। তবে পতাকা বৈঠকে কোনো সমাধান আসেনি। অবশ্য গতকাল সোমবার  রোহিঙ্গা নাগরিকদের জন্য তাঁবু বানিয়ে তাদের খাবার সরবরাহ করে বিএসএফ। অবশেষে আজ মঙ্গলবার সকালে ধাপে ধাপে তাদের ফিরিয়ে নেওয়া হয়।

বাংলাদেশের পাশাপাশি মিয়ানমার থেকে পালানো রোহিঙ্গারা আশ্রয় নিয়েছে ভারতেও। সে দেশের সরকার তাদেরকে বিতাড়ণের উদ্যোগ নিয়েছে বলে খবর এসেছে গণমাধ্যমে। আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম রয়টার্স জানিয়েছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে আসার চেষ্টা করা রোহিঙ্গাদের বেশিরভাগ ভারতের জম্মু ও কাশ্মিরে আশ্রয় নিয়েছিলেন। ভারতে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআরের দেওয়া শরণার্থী পরিচয়পত্রও তাদের কারও কারও কাছে ছিল।
 
মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে বিতাড়িত ১০ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা বর্তমানে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়ে আছে। তারা কক্সবাজারের বিভিন্ন ক্যাম্পে আছেন।

গত দেড় মাসে ভারত থেকে আসা এক হাজার তিনশরও বেশি রোহিঙ্গা কক্সবাজার ক্যাম্পে অবস্থান করছেন। 

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :