মনদীপের 'অল্প গল্প' বইয়ের ব্যতিক্রমী মোড়ক উম্মোচন

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ৩১ জানুয়ারি ২০১৯, ২৩:২১

ধানমন্ডির ঝিগাতলা বাস স্টপজের ঠিক উল্টো দিকে ক্যাফে রিও রেস্টুরেন্ট। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এখানকার পরিবেশটা ছিলো অন্য দিনগুলোর থেকে ভিন্ন। একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচনকে ঘিরে এমন আবহ ছিলো এখানে।

মনদীপ ঘরাই এর লেখা গল্পগ্রন্থ “অল্প গল্প” এর মোড়ক উম্মোচনে গতানুগতিক অনুষ্ঠানের হিসেব মিলছিলো না। ছিলো না কোনো প্রধান অতিথি, বিশেষ অতিথি কিংবা সভাপতি। লেখকের সঙ্গে মূল চেয়ারগুলোতে বসে ছিলো তিনজন শিশু। মিরাজ, তানজিলা ও রাজু নামের এই তিন শিশুর বয়স ১০ থেকে ১২। ওরা পথশিশু। ওরাই করেছে বইয়ের মোড়ক উন্মোচন।

শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া অমর একুশে গ্রন্থমেলায় পাওয়া যাবে বইটি।

ব্যতিক্রমী এই আয়োজনের উদ্যোক্তা মনদীপ ঘরাই পেশায় সরকারি কর্মকর্তা হলেও বেশি পরিচিত তার লেখালেখি আর সমাজকর্মের জন্য। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দায়িত্বে থাকাকালীন একদিনে যশোরের অভয়নগর উপজেলায় তিন লক্ষাধিক তালবীজ রোপন, জলাবদ্ধতা নিরসনে খাল থেকে কচুরিপানা পরিষ্কার, ঘরহারা শান্তিলতা দেবীকে শান্তিনীড় গড়ে দেয়ার মতো উদ্যোগ তাকে আলাদা করে তুলেছে।

এবার নিজের প্রথম গল্পগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানেও আনলেন ভিন্নতা। কিন্তু কারণটা কি?

মনদীপ ঘরাই ঢাকাটাইমসকে বলেন, লেখালেখির জগতটাকে সমাজকর্মের সঙ্গে মিশিয়ে দিতেই এ উদ্যোগ। খরুচে অনুষ্ঠান করে মোড়ক উন্মোচন না করে সিদ্ধান্ত নিয়েছি বাচ্চাগুলোকে সাথে নিয়ে একবেলা মন ভরে একসাথে খাওয়ার। ওদের কিছু উপহার দেয়ার আর পরবর্তীতে বইয়ের সাথে পাকাপাকিভাবে যুক্ত করার।

বইয়ের সঙ্গে আগত পথশিশুদের যুক্ত করার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে লেখক বলেন, অল্প-গল্প” বইয়ের লভ্যাংশের ২১ শতাংশ টাকা ব্যয় করা হবে এই তিন পথশিশুর শিক্ষা সহায়তায়। একুশে বইমেলা বলে সহযোগিতার শতাংশটাও একুশ।

লেখক জানান, একুশের সঙ্গে বইয়ের গল্প সংখ্যাতেও মিল আছে। ২১ টি গল্প আছে এই বইয়ে। যার মধ্যে সহজ শিশু নামে একটি গল্প আছে পথশিশুদের নিয়ে।

উদ্বোধকদের একজন দশবছর বয়সী মিরাজ নিজের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে বলে, ‘খুব মজা লাগছে এইখানে এসে। মন ভইরা খাইসি। গল্প করসি। বইয়ের প্যাকেট খুলসি। আগে এমন সুযোগ পাই নাই।’

বর্ষাদুপুর প্রকাশনী থেকে প্রকাশিতব্য এ বইয়ের প্রকাশক তম্ময় বলেন, আমার প্রকাশনার জীবনে এমন মোড়ক উন্মোচন এই প্রথম। খুবই ভালো লাগছে এমন একটি অনুষ্ঠানের অংশ হতে পেরে। আশা করি ব্যতিক্রমী এই অনুষ্ঠানের মতো বইটিও পাঠকপ্রিয়তা পাবে।

লেখকের আশা এমন উদ্যোগ অন্য লেখকদেরও উৎসাহিত করবে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যে মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত সচিব তপন কর্মকার, কুয়েটের প্রভাষক ফাহিম প্রিয়ন্ত, সঙ্গীত শিল্পী দীপক, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ব্লাডম্যানের প্রতিষ্ঠাতা জিসান, বাংলাদেশ বেতারের উপস্থাপক সজীব দত্ত প্রমুখ।

অল্প-গল্প বইটি মেলার বর্ষাদুপুরের স্টলে পাওয়া যাবে। স্টল নং ২৯৬-২৯৭।

(ঢাকাটাইমস/৩১জানুয়ারি/বিইউ/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

সাহিত্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :