দিল্লিতে অনশনে অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:১৫

ভারতের দক্ষিণ-পূর্বের রাজ্য অন্ধ্রপ্রদেশের জন্য বিশেষ আর্থিক সাহায্য চেয়ে রাজধানী দিল্লিতে  অনশনে বসেছেন রাজ্যটির মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নায়ডু। সোমবার একদিনের জন্য অনশনে বসেছেন তিনি। এই  আর্থিক সাহায্য না  পাওয়াতেই মোদির দলের জোট থেকে বেরিয়ে গিয়েছিল চন্দ্রবাবুর দল টিডিপি। খবর এনডিটিভির।

তার অনশনে  বসার একদিন আগেই অন্ধ্রপ্রদেশের সভা থেকে চন্দ্রবাবুকে  তীব্র আক্রমণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। গত বছর এনডিএ ছাড়ার সময় টিডিপি জানায় আর্থিক সাহায্য না দিয়ে রাজ্যের সঙ্গে  অন্যায় করা  হয়েছে। সরকার ছেড়ে বেরিয়ে  আসার পর বিজেপি সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করতে অনাস্থা প্রস্তাবও আনে তারা।

সোমবার সকাল থেকেই  অন্ধ্র ভবনে অনশন শুরু  করেন চন্দ্রবাবু। অনশনের পাশাপাশি নিজের দাবি  প্রসঙ্গে রাষ্ট্রপতিকে স্মারক লিপিও দেবেন তিনি। তার দলের সাংসদ থেকে  শুরু করে বিধায়ক এবং  অন্ধ্রপ্রদেশের সরকারি কর্মীরাও অনশনে যোগ দিয়েছে।

রবিবার চন্দ্রবাবুর বিরুদ্ধে তোপ দেগে নরেন্দ্র মোদি বলেন, কথায় কথায় উনি (চন্দ্রবাবু)বলেন, উনি আমার থেকে  সিনিয়র। এটা ঠিক। অবস্থান বদলের ব্যাপারে  উনি আমার আগেই আছেন। সঙ্গী বদলে নেওয়ার ব্যাপারেও উনি আমার থেকে আগে। চন্দ্রবাবু অন্ধ্র প্রদেশে নতুন  সূর্যোদয়ের কথা  বলেছিলেন। কিন্তু  তিনি এখন রাজ্যকে বঞ্চিত করে  নিজের ছেলের জীবনে নতুন সূর্যোদয়ের চেষ্টা করছেন।

গত বছর এপ্রিল মাসেও বিজয়ওয়ারাতে  একদিনের জন্য  অনশনে বসেন তিনি। এর আগেও তাকে অনশন করতে  দেখা  গিয়েছে। বছর  পাঁচেক আগে অন্ধ্র ভেঙে তেলেঙ্গানা তৈরির  সময় দিল্লির অন্ধ্র ভবনে অনির্দিষ্টকালীন অনশনে বসেন  টিডিপি  প্রধান।

সম্প্রতি কেন্দ্রীয় সরকার ও ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআইয়ের বিরুদ্ধে ধর্নায় বসেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। কলকাতার পুলিশ কমিশনারকে সিবিআই কর্মকর্তারা জেরা করতে আসার বিরোধিতা করে ধর্নায় বসেন মমতা। বিষয়টি ব্যাপক আলোচিত হয়। শেষ পর্যন্ত আদালত বিষয়টি মিমাংসা করেছে।

ঢাকা টাইমস/১১ফেব্রুয়ারি/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :