ঠাকুরগাঁওয়ে বিজিবি-গ্রামবাসী সংঘর্ষে নিহত ৪

ঠাকুরগাঁও প্রতিবেদক
| আপডেট : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৮:৩৮ | প্রকাশিত : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৫:২৯

ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার বহরমপুর এলাকায় বিজিবির সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়েছে গ্রামবাসী। এতে চারজন নিহত হয়েছেন। সন্দেহভাজন ভারতীয় গরু আটক করতে গেলে বিজিবির সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায় গ্রামবাসী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে হরিপুর উপজেলার বেতনা বিওপির সদস্যরা বকুয়া ইউনিয়নের বহরমপুর গ্রামের মাহবুব আলমের বাড়িতে যায়।

তার বাড়িতে থাকা চারটি গরুকে ভারতীয় গরু দাবি করে তা আটক করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সদস্যরা। বাধা দিতে গেলে গ্রামবাসীর সঙ্গে বিজিবির সংঘর্ষ শুরু হয়। সংঘর্ষে গুলিতে সাদেকুল ইসলাম এবং নবাব আলী নামে দুই গ্রামবাসীসহ চারজন নিহত হয়। আহত হয় নারী ও শিশুসহ অন্তত ২৩ জন।

নিহত নবাব আলী হরিপুর উপজেলার রহিয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে এবং সাদেকুল একই গ্রামের জাহির উদ্দীনের ছেলে।

আহতদের মধ্যে মিঠুন, ইশাদ, সাদেকুল, তৈমুর, রাসেল, আনসারুল, সাদেকুল, জয়নুল, মুন তারা, বাবু, নওশাদ, আব্দুল হান্নান, জেবুন্নেছা এবং নুরনাহারের নাম জানা গেছে। আহতদের অনেককে হরিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

হরিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আব্দুস সামাদ বলেন, আহতদের মধ্যে ১৫ জনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া গেছে। তাদের গুলি বের করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। অনেককে উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এম জে আরিফ বেগ, উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। হরিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বিজিবির সঙ্গে গ্রামবাসীর সংঘর্ষের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

হরিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিরুজ্জামানও বিজিবির গুলিতে দুই গ্রামবাসীর নিহতের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

৫০ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল তুহিন বিন মাসুদ জানান, বেতনা বিওপির সদস্যরা ভারতীয় গরু আটক করতে গেলে চোরাকারবারিরা সংঘবদ্ধ হয়ে বিজিবির উপর হামলা চালালে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

ঢাকা টাইমস/১২ফেব্রুয়ারি/প্রতিনিধি/এমআর

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :