হনুমানের লাশ কাঁধে নিয়ে সাধুর আহাজারি

মাদারীপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২২:৪১

মাদারীপুরের মস্তফাপুরে একটি হনুমানটি বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মারা গেছে। বৃহস্পতিবার সকালে মস্তফাপুর বাসস্ট্যান্ডের কাছে এই ঘটনা ঘটে। হনুমানটিকে লালন পালন করতেন স্থানীয় হিন্দু সাধক মনি পাগল।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ছোট্ট দুটি হনুমানের বাচ্চাকে উন্মুক্তভাবে লালন পালন করতেন মাদারীপুরের মস্তফাপুরে শ্রীশ্রী নরোত্তম ব্রজবাসী সেবাশ্রমের সেবাইত ও সাধক পুরুষ মনি পাগল। সেই জোড়া হনুমানের একটি বেশ কয়েক বছর আগে কে বা কারা যেন বিষ খাইয়ে মেরে ফেলার পর একটি হনুমানই তার আশ্রম ঘিরে বেঁচে ছিল। কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে হনুমানটি মস্তফাপুর বাসস্ট্যান্ডের কাছে একটি বহুতল ভবন থেকে লাফ দিতে গেলে বৈদ্যুতিক খুঁটির ক্যাবলের সাথে জড়িয়ে ঘটনাস্থলেই বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মারা যায়। খবর পেয়ে মনি পাগল ছুটে এসে হনুমানের লাশটি কখনো কাঁধে, কখনো কোলে কিংবা কখনো মাটিতে রেখে কান্নাকাটি ও নানা রকমের আহাজারি করেন।

মনি পাগল কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, ‘আমার বুকের মধ্যে পোলা মইর‌্যা যাওয়ার ব্যথা হইতেছে। আমি এখন কোথায় পাবো আমার হনুমানটিকে। আগেরটিকে বিষ খাওয়াইয়া মারছে। এহন এই হনুমানটাও মরলো। কথাগুলো বলতে বলতে বিলোপ করতে থাকেন। তার কান্না দেখে আরো অনেক লোকজন হনুমানের লাশটির কাছে এসে জড়ো হতে দেখা যায়।’

মনি পাগল এসময় বলেন, ‘আমি আমার হনুমানটির চামড়া ও মুখ আমার কাছে রেখে দিতে চাই। স্মৃতি হিসেবে। হনুমানটিকে আমি খুব ভালোবাসতাম।’

মাদারীপুর ভারপ্রাপ্ত বন কর্মকর্তা তাপস সেন বলেন, যেহেতু হনুমানটি মরে গেছে, সেহেতু আমাদের এটা নিয়ে তেমন আর কাজ নেই।’

(ঢাকাটাইমস/১৪ফেব্রুয়ারি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

শিরোনাম :